হিজাব খুলতে অস্বীকৃতি, সমাবর্তনে ঢুকতে বাধা নাইজেরীয় গ্র্যাজুয়েটকে

হিজাব খুলতে অস্বীকৃতি জানানোয় নাইজেরিয়ার আইনের একজন গ্র্যাজুয়েটকে বারের অনুষ্ঠানে প্রবেশ করতে দেয়নি কর্তৃপক্ষ। মুসলিম ওই ছাত্রীর নাম অ্যামাসা ফেরদাউস আব্দুলসালাম।

গত ১২ ডিসেম্বর রাজধানী আবুজার আন্তর্জাতিক সমাবর্তন কেন্দ্রে প্রবেশের জন্য তাকে হিজাব খুলতে বলা হয়। কর্তৃপক্ষের এই নির্দেশ পালনে ফেরদাউস অস্বীকৃতি জানালে তাকে সেখানে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয় নি।

অ্যামাসা ফেরদাউস দেশটির ইলোরিন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন। লাগোস ভিত্তিক নাইজেরিয়ান আইন স্কুল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এটি তার আইন স্কুলের নির্ধারিত ড্রেস কোডের বিরুদ্ধে যাওয়ায় তাকে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি।

স্থানীয় মিডিয়ার খবরে এটি বলা হয়, ফেরদাউস তার হিজাব খুলতে অস্বীকৃতি জানান। এর প্রতিবাদে তিনি তার মাথায় হিজাবের ওপর পরচুলা পরতে শুরু করেছেন।

খবরটি ব্যাপকভাবে সামাজিক যোগাগাযোগ মাধ্যমগুলো ছড়িয়ে পড়েছে। এ নিয়ে অনেকেই মিশ্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন। ইন্ট্রাগ্রাম ব্যাবহারকারী একজন নারী বলেন, ‘ফেরদাউস তার অধিকার মধ্যেই ছিল।’

জুলিয়েট কেগো নামে এক টুইটার ব্যবহারকারী বলেন, এটি নাইজেরিয়ান সমাজে নারীর প্রতি যৌনবৈষম্যের একটি উদাহরণ।

তবে, টোবিচুকুউ একুনাইফ নামে অন্য একজন ভিন্নমত প্রকাশ করে বলেন, ফেরদাউসের উচিৎ আইন স্কুলের নন-হিজাবের নিয়ম মেনে চলা।

ইলোরিন বিশ্ববিদ্যালয় পশ্চিমাঞ্চলীয় নাইজেরিয়ান রাজ্য কাউয়ারার একটি ফেডারেল বিশ্ববিদ্যালয়। এটি ল্যাগোস থেকে প্রায় ১৬২ মাইল (২৬৬ কিমি) দূরে অবস্থিত।

সূত্র: আল জাজিরা, বিবিসি

মুহাম্মদ (সা.) কে নিয়ে কটূক্তি করায় মালয়েশীয় নারীর সাজা

হযরত মুহাম্মদ (সা.) কে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করায় শুক্রবার মালয়েশিয়ার এক নারীকে ছয় মাসের কারাদণ্ড দিয়েছে দেশটির একটি আদালত।

দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের খবরে এই তথ্য জানানো হয়েছে। দণ্ডপ্রাপ্ত ওই নারী দেশটির চাইনিজ সংখ্যালঘু জাতিগোষ্ঠীর। তার নাম থম ইয়োট মুই (৪৬)।

রাষ্ট্র পরিচালিত ‘বারনামা নিউজ এজেন্সি’র খবরে বলা হয়, ২০১৬ সালে নর্দান পেরাক রাজ্যের একটি মসজিদে ইসলামের নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) কে নিয়ে কটূক্তির তিনটি মামলায় এই নারীকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে।

একই সঙ্গে তাকে ইপোর ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ৩,৭০০ মার্কিন ডলার জরিমানা করা হয়েছে। তবে, আপীলের সুযোগ থাকায় ওই নারীকে এখনই জেলে যেতে হচ্ছে না। এই রায়ের বিরুদ্ধে আপীলের প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে বলে ওই নারীর আইনজীবী জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.