ট্রাম্পের সিদ্ধান্ত মানি না; বিক্ষোভে সারাদেশ উত্তাল

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের ডাকে আজ জুমা বাদ সারা দেশে জেরুসালেম ইস্যুতে বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়েছে। মিছিলে ইসলামি দলগুলোর নেতাকর্মীসহ সাধারণ ধর্মপ্রাণ মানুষ শরীক হয়েছেন।

শুক্রবার বাদ জুমা হেফাজত ঢাকা মহানগরীর উদ্যোগে বায়তুল মোকাররমের উত্তরগেটে সমাবেশ শুরু হয়। এতে ঢাকার কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ অংশ নেন।

নামাজের পরপরই বায়তুল মোকাররমের আশপাশে বিপুল পরিমাণ মানুষকে জড়ো হতো দেখা যায়। তাদের কণ্ঠে ছিল ‘ট্রাম্পের ঘোষণা মানি না মানবনা’, জেরুজালেম ফিলিস্তিনের, ইসরায়েল নিপাত যাক’ ইত্যাদি স্লোগান।

বায়তুল মোকাররমে অবস্থান করছেন আওয়ার ইসলামের প্রতিনিধি মুহাম্মদ তারিক জামিল। টেলিফোনে তিনি জানান, ১৩ ডিসেম্বর আমেরিকান দূতাবাস ঘেরাওয়ের কর্মসূচি দিয়েছে হেফাজত ঢাকা মহানগর। বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেটে জুমার নামাজের পর পরই ব্যানার নিয়ে নেতা কর্মীরা দাঁড়িয়ে যান। সেখানে একের পর এক বক্তব্য রাখেন হেফাজতের নেতৃবৃন্দ।

হাটহাজারীতে বিক্ষোভ

আওয়ার ইসলামের হাটহাজারী প্রতিনিধি ইশতিয়াক সিদ্দিকী জানিয়েছেন, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের হাটহাজারী শাখার উদ্যোগে বাদ জুমা বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়। সেখানে হাজারও ধর্মপ্রাণ মানুষ বিক্ষোভে অংশ নেন। তারা ট্রামের হটকারী সিদ্ধান্তের তীব্র প্রতিবাদ জানান।

বায়তুল মোকাররম থেকে আওয়ার ইসলাম প্রতিনিধি কাউসার লাবীব জানান, বাদ জুমা বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেট থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ।

মিছিলের আগে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে নেতাকর্মীরা। তারা জেরুসালেম নিয়ে ট্রাম্পের বিতর্কিত এক তরফা সিদ্ধান্তের তীব্র নিন্দা জানান। সেই সাথে এমন সিদ্ধান্তের চূড়ান্ত জবাব মুসলিম বিশ্ব দেবে বলেও জানান।

সমাবেশ ও মিছিলে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলনের কেন্দ্রীয় নেতা অধ্যাপক মাওলানা এটিএম হেমায়েত উদ্দীন, মাওলানা মাহবুবুর রহমান, মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, মাওলানা ফজলে বারী মাসউদ, মাওলানা নেছার উদ্দীন প্রমখু।

এদিকে একই দাবিতে বায়তুল মোকাররমের উত্তরে ভিক্ষোভ মিছিল করেছে বাংলাদেশ খেলফত মজলিস ঢাকা মহানগরী। বাদ জুমা নেতাকর্মীদের একটি মিছিল পল্টন ও তার আশপাশে প্রদক্ষিণ করে।

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র মজলিস ঢাকা মহানগরের উদ্যোগে একই স্থানে মিছিল করতে দেখা গেছে।

উৎসঃ   আওয়ার ইসলাম

Check Also

হাজী সেলিমের হাতে জিম্মি লালবাগ?

গতকাল রাতে হাজী সেলিমের পুত্রের হাতে একজন নৌ-বাহিনী কর্মকর্তার লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনার পর মুখ খুলেছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Share
Pin