রাতে বিএনপির নেতার বাসায় হামলা, পাল্টা হামলার হুঁশিয়ারি (ভিডিও সহ)

ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সহ-সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা জামানের বাড়িতে গতকাল শনিবার রাতে হামলা হয়েছে। উত্তরার কামারপাড়ার রানাভোলায় অবস্থিত বাড়িতে এ হামলার ঘটনা ঘটে। নেতাকর্মীদের ওপর ফের এ ধরনের হামলা হলে প্রয়োজনে পাল্টা হামলা চালানোর হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী এস এম জাহাঙ্গীর।

হামলা হওয়া নেতার বাড়ির সিসি ক্যামেরা ফুটেজে দেখা যায়, গতকাল শনিবার রাত ১টার দিকে একদল যুবক মোটরসাইকেল থেকে নেমে ওই বাড়ি লক্ষ্য করে ডিম, ইটপাটকেল ও বাড়ির মূল ফটকে কাঠ ছুঁড়ে মারছেন। মোস্তফা জামান ওই বাড়িতে বসবাস না করলেও তার মা সেখানে থাকেন বলে জানিয়েছেন তুরাগ থানা বিএনপির সভাপতি আমান।

উত্তরা পশ্চিম থানা বিএনপির আহ্বায়ক আফাজ উদ্দিন দৈনিক আমাদের সময়কে বলেন, ‘এর আগে দিনের বেলা ৪৮ ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলী আকবর আলীর বাসায় দিনের বেলায় হামলা হয়েছে। এতে করে নেতাকর্মীদের মধ্যে একটা ভয় কাজ করছে।’

দলীয় সূত্রে জানা যায়, ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ের সামনে মারামারির ঘটনায় আহত এবং মহাসচিবের বাসায় ডিম নিক্ষেপ করার ঘটনায় বহিষ্কৃতরাই এসব হামলার সঙ্গে জড়িত। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন বহিষ্কৃত নেতা জানান, গুলশানের ঘটনার বিচার না পাওয়া পর্যন্ত এ ডিম থেরাপি চলবে।

আজ রোববার সকালে মোস্তফা জামানের বাসায় গিয়ে তার পরিবারের সদস্যদের শান্ত্বনা দেন এস এম জাহাঙ্গীর। সেখানে নেতাকর্মীদের উদ্দেশে দেওয়া বক্তব্যে ঢাকা-১৮ আসনের বিএনপি প্রার্থী এস এম জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ‘ওই খুনি হাসিনার দল রাতের আঁধারে আমাদের নেতাকর্মীদের বাড়িতে হামলা চালিয়েছে। এর জবাব আমরা ১২ নভেম্বর ভোটের মাধ্যমে দেব। আমাদের কোনো নেতাকর্মীর ওপর হামলা চালানো হলে, প্রয়োজনে পাল্টা হামলা হবে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা শান্তিপূর্ণ থাকতে চাই। অশান্তি ডেকে আনবেন না, কারো জন্যই মঙ্গল হবে না। নেতাকর্মীদের বলব, ভোট কেন্দ্রে গিয়ে প্রমাণ করবেন।’

এস এম জাহাঙ্গীর বলেন, ‘প্রশাসনকে বলত চাই, আমরা শান্তিপূর্ণ জনতা, শান্তিতে থাকতে চাই। আপনারা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ব্যাপারগুলো দেখবেন। আমি রাতে ফোন করেছি, ভিডিও ফুটেজ আছে, দেখে যদি ব্যবস্থা না নেন, আমরা অন্য ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবো।’

আওয়ামী লীগের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘হামলা-মামলা করে আমাদের দমিয়ে রাখতে পারবেন না। আমরা নির্বাচন করতেছি, নির্বাচন করবো।” দলীয় নেতাকর্মীসহ সকলকে ঐক্যবদ্ধ থেকে কাজ করার আহ্বান জানান জাহাঙ্গীর।

জাহাঙ্গীরের সঙ্গে থাকা বিএনপি নেতা ইশরাক হোসেন বলেন, ‘রাতের বেলা কেন? দিনের বেলায় আসেন। দেখিয়ে দেবো কার কত শক্তি। রাতের বেলা কাপুরুষের মতো হামলা করে ভয় দেখানো যাবে না।’

আজ রোববার তৃতীয় দিনের মতো ধানের শীষের পক্ষে উত্তরখান আটিপাড়া বাজার থেকে শুরু হয়ে হেলাল মার্কেট, চামুরখান, মৈনারটেক,মাস্টার বাড়ি, আটিপাড়া হয়ে রাজবাড়ী। বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, রওনক ইসলাম টিপু, আব্দুল মতিন, মাহবুব করিম জাফর, মহানগর নেতা আলতফ উদ্দিন মোল্লা, বেলাল আহমেদ, কাদের হালিম, আহসান হাবিব, জাহাঙ্গীর আলম বেপারী প্রমুখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

Check Also

bnp-flag

নতুন সংকটে বিএনপি

দীর্ঘদিন ক্ষমতায় বাইরে থাকার ফলে দলীয় কোন্দল ও উপনির্বাচন-স্থানীয় সরকার নির্বাচনে ভরাড়ুবি এবং সাংগঠনিক দুর্বলতাসহ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Share
Pin