alal-bnp

চারজনকে মন্ত্রিসভা থেকে ‘গলাধাক্কা দিয়ে বের’ করতে বললেন আলাল

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবিলায় ‘ব্যর্থতা’র জন্য সরকারের কঠোর সমালোচনা করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল। ক্ষুব্ধ আলাল এজন্য চারজনকে মন্ত্রিসভা থেকে গলাধাক্কা দিয়ে বের করে দেয়ার দাবিও তুলছেন।

সোমবার (১৩ এপ্রিল) বিকেলে রাজধানীতে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে সাধারণ মানুষের হাত ধোয়ার জন্য স্থাপিত বেসিন উদ্বোধন করে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এ দাবি করেন।

আলাল বলেন, বাংলাদেশে কিছু শিক্ষিত গরু আছে। আমরা বাঁচার জন্য খাই, আর এই শিক্ষিত গরুগুলো খাওয়ার জন্য বাঁচে। খাওয়ার জন্য যেগুলো বাঁচে সেগুলোকে এই সমাজ থেকে, সুন্দর একটা স্বাস্থ্য প্রোগ্রামে দাঁড়িয়েও দুঃখের সঙ্গে ক্ষোভের সঙ্গে বলতে চাই, স্বাস্থ্যমন্ত্রী, শ্রমমন্ত্রী, বাণিজ্যমন্ত্রী এবং অর্থমন্ত্রী, এদের অবিলম্বে গলাধাক্কা দিয়ে মন্ত্রিসভা থেকে বের করে দেয়া হোক।

তিনি বলেন, আমরা সবাই জানি, আজকে সারা পৃথিবীটাকে অশান্ত অবস্থায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। অদৃশ্য শত্রুর কবলে পৃথিবী। সেই অদৃশ্য শত্রুকে মোকাবিলা করতে হলে কিছু দৃশ্যমান যেটা দেখা যায় এবং করা যায়, সেই জিনিসগুলো পালন করার উদ্যোগ নিতে হবে। জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন শুধু ত্রাণ বিতরণ নয়, জনসচেতনতায়ও কাজ করছে, আজকের অনুষ্ঠান তারই বহিঃপ্রকাশ।

তিনি বলনে, আজকে করোনা থেকে মুক্তির জন্য দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ঘরে বসে দোয়া করছেন এবং আমাদের দেশনায়ক তারেক রহমান সার্বিক নির্দেশনা দিচ্ছেন সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য। কেননা আজ গোটা বিশ্ব এক অদৃশ্য শক্তির কবলে আটকা।

আলাল বলেন, এই জায়গা দিয়ে যারা চলাচল করেন সাধারণ মানুষ শ্রমিক শ্রেণির মানুষ, তারা সহজেই এখান থেকে হাত ধুয়ে পরিষ্কার করে যেতে পারবেন। এখন যেটা সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন, নিজে পরিচ্ছন্ন থাকা এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করা।

বিএনপির এ নেতা বলেন, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বারবার হাত ধোয়ার নির্দেশনা দিচ্ছে। সেটা মেনেই জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন সাধারণ মানুষের হাত ধোয়ার জন্য রাজধানীতে বেসিন স্থাপন করলো, এটা নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয় উদ্যোগ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের অধ্যাপক মো. মোর্শেদ হাসান খান, প্রকৌশলী মাহবুব আলম, আসাদুজ্জামান চুন্নু, আশরাফ রেজা ফরিদী, উমাশা উমায়ুন মনি চৌধুরী, কামরুল হাসান সাইফুল, আতিকুর রহমান রুমন, শায়রুল কবির খান প্রমুখ। অনুষ্ঠানে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর স্কাইপিতে বক্তব্য দেন।

Check Also

যেভাবে সরকারকে হঠাতে চায় বিএনপি-জামায়াত

আন্দোলন নয়, গণঅভ্যুত্থান নয়, বরং পরিকল্পিত কিছু ষড়যন্ত্রের মাধ্যমেই সরকারকে হঠাতে চায় বিএনপি জামাত জোট। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Share
Pin