mirja_bnp

করোনায় সরকারের চরম অবহেলায় অব্যবস্থাপনার সৃষ্টি হয়েছে : ফখরুল

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সরকারের অবহেলা-অজ্ঞতার কারণে চরম অব্যবস্থাপনা দেখা যাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সোমবার (১৩ এপ্রিল) বিকেলে রাজধানীতে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে সাধারণ মানুষের হাত ধোয়ার জন্য স্থাপিত বেসিন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে স্কাইপিতে তিনি এ অভিযোগ করেন।

ফখরুল বলেন, ‘আজকে সবচেয়ে দুর্ভাগ্যজনক ব্যাপার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলে কোনো চিকিৎসার ব্যবস্থা নাই। যে হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসার কথা বলা হচ্ছে সে হাসপাতালগুলোতে আসলে কোনো চিকিৎসা নেই। কিছুক্ষণ আগে আমি দেখতে পেলাম কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে যারা নার্স আছেন তাদের খাবারের কোনো ব্যবস্থা নেই।’

‘এই যে চরম একটা অব্যবস্থাপনা, এই অব্যবস্থাপনার একটা মাত্র কারণ হচ্ছে- সরকারের চরম অবহেলা এবং অজ্ঞতা অথবা সেই মানসিকতাই তাদের তৈরি হয়নি কীভাবে এই জিনিসটাকে মোকাবিলা করতে হয়।’

তিনি বলেন, ‘আজকে আমরা দেখছি যে, জেলাগুলোতে যেখানে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছেন তাদের পরীক্ষার ব্যবস্থা নেই, তাদের চিকিৎসার ব্যবস্থা নেই। একটা জটিল ভয়াবহ অমানবিক পরিস্থিতি বিরাজ করছে। আমরা এই অবস্থা থেকে বেরোনোর জন্য সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার কথা বলেছি।’

‘আসুন আজকে আমরা যে যেখানে আছি, যে যতটুকু পারি, যেভাবে পারি আমরা যেন মানুষের জন্য এই চরম দুর্দিনে তাদের পাশে গিয়ে দাঁড়ানোর চেষ্টা করি।’

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় প্রান্তিক জনগোষ্ঠীসহ বিভিন্ন শ্রেণির জন্য ৮৭ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা দিতে বিএনপির প্রস্তাবের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘সব কিছু বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সাধারণ দিন আনে দিন খাওয়া মানুষ অসহায় অবস্থার মধ্যে আছে, অনেকে না খেয়ে আছে। প্রান্তিক মানুষ অনেকে আছেন তারা খাবার পাচ্ছেন না। সরকার এ বিষয়ে কোনো বাস্তব কার্যকর পদক্ষেপ নিচ্ছে না।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘তারা একটা প্যাকেজ দিয়েছে, যে প্যাকেজে পুরোপুরিভাবে শুধু যারা বিত্তশালী, যারা বিভিন্ন ব্যাংকের সাথে জড়িত, বিভিন্ন গার্মেন্টসের সাথে জড়িত তাদের জন্য এই প্যাকেজগুলো করা হয়েছে। তাও শুধু ঋণের জন্য। আমরা দেখেছি এই প্যাকেজটা একটা ব্যাংক ঋণের প্যাকেজ। সাধারণ মানুষের জন্য কোনো বরাদ্দ আমরা দেখতে পারছি না। আমরা পত্রিকাগুলোতে দেখছি ১০ টাকা কেজি চাল দেয়া হচ্ছিল গরিব লোকের জন্য, তা চলে যাচ্ছে আওয়ামী লীগের নেতাদের ঘরে। আমরা দেখছি যে, গার্মেন্টস ফ্যাক্টরিগুলোতে শ্রমিকরা বেতন চাচ্ছে তাদের বেতন না দিয়ে পেটানো হচ্ছে। আজকে এক ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।’

করোনাভাইরাস সংক্রমণ থেকে রক্ষায় দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দুর্দিনে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন এবং দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া অসুস্থ অবস্থায় এই ভাইরাস থেকে পরিত্রাণে দেশবাসীর জন্য আল্লাহ তায়ালার কাছে দোয়া করছেন বলেও জানান ফখরুল।

তেজগাঁওয়ে দৈনিক দিনকাল কার্যালয়ের কাছে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে হাত ধোয়ার জন্য নতুন বেসিন স্থাপন করা হয়। ওই কর্মসূচির উদ্বোধন করেন বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল। ফাউন্ডেশনটি ইতোমধ্যে তিনশ’ বেসিন স্থাপন করে জনসাধারণের জন্য হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করেছে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের অধ্যাপক মো. মোর্শেদ হাসান খান, প্রকৌশলী মাহবুব আলম, আসাদুজ্জামান চুন্নু, আশরাফ রেজা ফরিদী, উমাশা উমায়ুন মনি চৌধুরী, কামরুল হাসান সাইফুল, আতিকুর রহমান রুমন, শায়রুল কবির খান প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.