মানিকগঞ্জে করোনার লক্ষণ নিয়ে গৃহবধূর মৃত্যু

মানিকগঞ্জে করোনাভাইরাসের লক্ষণ নিয়ে সুচিত্রা সরকার (২৬) নামে এক গৃহবধূ মারা গেছেন। রোববার (২৯ মার্চ) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার মুন্নু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আনা হলে সেখানকার চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সুচিত্রা সরকার হরিরামপুর উপজেলার বলড়া ইউনিয়নের বড়ইছড়া গ্রামের মুদি দোকানদার নিতাই সরকারেরর স্ত্রী।

মুন্নু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপপরিচালক এস এম মনিরুজ্জামান জানান, মৃত অবস্থায় গৃহবধূ সুচিত্রা সরকারকে হাসপাতালে আনা হয়েছিল। তিনি সাতদিন ধরে জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট এবং দুদিন ধরে পাতলা পায়খানায় আক্রান্ত ছিলেন। হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে বলে জানান হাসপাতালের উপপরিচালক।

তিনি বলেন, সাতদিন আগে ওই গৃহবধূর শ্বশুর মারা যান। তার শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে অনেক লোক সমাগম হয়েছিল। সেখানে আসা কোনো ব্যক্তির কাছ থেকে তিনি আক্রান্ত হতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। তাছাড়া ২৬ বছর বয়সী ওই নারীর ডায়াবেটিস এবং হৃদরোগসহ অন্য কোনো রোগ ছিল না। হঠাৎ করে তার এই মৃত্যু সন্দেহজনক হওয়ায় বিষয়টি পুলিশ, সিভিল সার্জন এবং সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (আইইডিসিআর) জানানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে মানিকগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. আনোয়ারুল আমিন আখন্দ বলেন, নির্দেশনা অনুযায়ী মৃত ব্যক্তি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন কিনা তা নিশ্চিত হওয়ার জন্য নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআরে পাঠানো হয়েছে।

জেলা প্রশাসক এস এম ফেরদৌস বলেন, ওই গৃহবধূর পরিবারের সদস্য এবং তাদের নিকটতম প্রতিবেশীদের কোয়ারেন্টাইনে রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। একই সঙ্গে হাসপাতালকে বিশেষ নজরদারিতে এবং রোগীর সংস্পর্শে আশা ব্যক্তিদের কোয়ারেন্টাইনে রাখা হযেছে। পরীক্ষায় ওই গৃহবধূর করোনাভাইরাস শনাক্ত হলে পুরো গ্রামকেই লকডাউন করা হবে বলে জানান তিনি।

সূত্র: জাগো নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.