স্বৈরাচার সরকারকে গদি থেকে নামাবোই: যুবদলের সভাপতি

‘দে‌শের জনগণকে ঐক্যবদ্ধ ক‌রে এই স্বৈরাসার সরকার‌কে গ‌দি থে‌কে নামা‌বোই নামা‌বোই’ বলে সরকার‌কে হুঁশিয়ারি দি‌য়েছেন যুবদ‌লের সভাপ‌তি সাইফুল আলম নীরব।

শ‌নিবার নয়াপল্ট‌নে বিএন‌পির ৪০তম প্র‌তিষ্ঠাবা‌র্ষিকী উপল‌ক্ষে আ‌য়ো‌জিত সমা‌বে‌শে তি‌নি এসব কথা ব‌লেন তিনি। এর আগে বিএনপির ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত জনসভা আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়েছে। পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে শনিবার দুপুর ২টায় এই জনসভা শুরু হয়।

‌তি‌নি ব‌লেন, ‘দেশনেত্রী বেগম খা‌লেদা আজ মিথ্যা মামলায় জে‌লে। বিএন‌পির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তা‌রেক রহমা‌নের না‌মে মিথ্যা মামলা দি‌য়ে‌ছে এ অবস্থায় দে‌শের জনগণ শা‌ন্তি‌তে বসবাস কর‌তে পার‌ছে না। তাই যুবদ‌লের পক্ষ থে‌কে সারা দে‌শের মানুষ এক‌ত্রিত ক‌রে এই অবৈধ সরকারকে গ‌দি থে‌কে নামা‌বোই।’

এসময় যুবদ‌লের নেতাকর্মী‌দের ঐক্যবদ্ধ হয়ে ক‌ঠোর আ‌ন্দোলন গ‌ড়ে তোলার আহবান করেন তিনি।

এর আগে নির্ধারিত সময়ের আগেই বিএনপির জনসভাস্থল নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে কানায় কানায় ভরপুর হয়ে গেছে। বেলা ২টা থেকে জনসভার কার্যক্রম শুরু হওয়ার কথা থাকলেও দুপুর ১২টা থেকেই রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সম্মুখভাগ নেতাকর্মীদের দ্বারা ভরপুর হয়ে গেছে।

একের পর এক এসেছে মিছিল, সেই সঙ্গে চলছে নেতাকর্মীদের স্লোগান। এ যেন বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে নেতাকর্মীদের ঢল নেমেছে। নেতাকর্মীর স্লোগানে স্লোগানে নয়াপল্টন ও তার আশপাশের এলাকা প্রকম্পিত।

এদিকে জনসভার জন্য চারটি ট্রাক দিয়ে অস্থায়ী মঞ্চ তৈরি করা হয়েছে। ইতোমধ্যে যারা রাজধানীর বিভিন্ন থানা ও দলটির অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের ব্যানারে কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়েছেন তারা দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিসহ নানা দাবিতে স্লোগানে স্লোগানে সমাবেশস্থলকে উজ্জীবিত করে রাখার চেষ্টা করছেন। পাশাপাশি মঞ্চ থেকেও নেতাকর্মীরা প্রতিবাদী বক্তব্য দিয়ে সমাবেশ জাগিয়ে রাখার চেষ্টা করে যাচ্ছে।

এই কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করছেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। আর এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেবেন দলের প্রবীণ নেতা ও স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। এছাড়াও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সিনিয়র নেতারা বক্তব্য রাখছেন।

এদিকে বিএনপির পূর্বঘোষিত সমাবেশকে ঘিরে নয়াপল্টন বা আশপাশের এলাকায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে পুলিশ। বিএনপি অফিস ও নাইটিংগেল মোড়, ফকিরাপুল মোড়সহ এর আশপাশের এলাকায় কঠোর নিরাপত্তা বলয় গড়ে তুলেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। পাশাপাশি সাদা পোশাকধারী আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যও মোতায়েন করা হয়েছে।

পন্টন থানার ওসি মাহমুদুল হাসান জানান, সমাবেশকে কেন্দ্র করে পুলিশের বিশেষ টিম কাজ করছে। সাদা পোশাকেও পুলিশ রয়েছে। সন্দেহজনক কাউকে দেখতে পেলে আমরা তাকে সার্চ করছি। আশা করছি নিরাপত্তার কোনো ব্যাঘাত ঘটবে না।

এব্যাপারে পুলিশের রমনা বিভাগের উপ কমিশনার (ডিসি) মারুফ হোসেন সরদার জানান, বিএনপি বা তার অঙ্গ সংগঠন সমাবেশ ডেকেছে, তারা সমাবেশ করবে। সমাবেশের নামে কেউ বিশৃঙ্খলা করলে পুলিশ আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে।

Check Also

bnp-flag

নতুন সংকটে বিএনপি

দীর্ঘদিন ক্ষমতায় বাইরে থাকার ফলে দলীয় কোন্দল ও উপনির্বাচন-স্থানীয় সরকার নির্বাচনে ভরাড়ুবি এবং সাংগঠনিক দুর্বলতাসহ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Share
Pin