nirbachon_commission

সিটি নির্বাচনে প্রচারণায় অংশ নিতে পারবেন সংসদ সদস্যরা: ইসি

সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রার্থীদের আচরণ বিধিমালা সংশোধনের খসড়া চূড়ান্ত করেছে নির্বাচন কমিশন। নতুন বিধিমালা অনুযায়ী, সংসদ সদস্যরা নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিতে পারবেন।

বৃহস্পতিবার (২৪ মে) বিকেলে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে সিটি করপোরেশন নির্বাচনের আচরণবিধি নিয়ে কমিশনের সভা শেষে এ তথ্য জানান ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

সচিব বলেন, ‘সংসদ সদস্যরা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রচারে অংশ নিতে পারবেন। তবে সংসদ সদস্যরা সার্কিট হাউজ এবং সরকারি গাড়ি ব্যবহার করতে পারবেন না।’

‘এটি আমাদের নির্বাচন কমিশন থেকে পাস হয়েছে। দ্রুতই এটি আইন মন্ত্রণালয়ে যাবে’, যোগ করেন ইসি সচিব।

সিটি করপোরেশন নির্বাচনের বর্তমান আচরণ বিধিমালা অনুযায়ী, সরকারি সুবিধাভোগী অতিগুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা তফসিলের পর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রচারে অংশ নিতে পারেন না। তবে ভোট দেওয়ার জন্য তারা কেন্দ্রে যেতে পারেন।

অতিগুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা হচ্ছেন- প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার, মন্ত্রী, চিফ হুইপ, ডেপুটি স্পিকার, বিরোধীদলীয় নেতা, সংসদ উপনেতা, বিরোধীদলীয় উপনেতা, প্রতিমন্ত্রী, হুইপ, উপমন্ত্রী, সংসদ সদস্য ও সিটি করপোরেশনের মেয়র।

আরো পড়ুন…

খুলনা সিটি নির্বাচনে অনিয়মের তথ্য খুঁজছে ইসি
খুলনা: খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অনিয়মের প্রকৃত কারণ ও অনিয়ম নিয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত ‘নেতিবাচক’ প্রতিবেদনের প্রকৃত তথ্য খুঁজছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। খুলনা আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা খুলনা, সংশ্লিষ্ট জেলা/উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা বৃহস্পতিবার পাঠান ইসির যুগ্ম সচিব (চলতি দায়িত্ব) ফরহাদ আহাম্মদ খান।

নির্দেশনায় বলা হয়, খুলনা সিটি নির্বাচন নিয়ে ১৬ মে ও ১৭ মে বিভিন্ন গণমাধ্যমে নেতিবাচক/বিরূপ প্রতিবেদন হয়েছে। এসব প্রকাশিত প্রতিবেদন ও ছবির পরিপ্রেক্ষিতে প্রকৃত তথ্য অবহিত করার জন্য রিটার্নিং কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছে ইসি। ২৪ মে এরমধ্যে প্রকৃত তথ্য কমিশনকে অবহিত করতে হবে।

দোষীদের চিহ্নিত করতে হবে

এ নির্বাচনে বন্ধ ঘোষিত তিন কেন্দ্রের অনিয়ম তদন্তে গঠিত তিন সদস্যের কমিটি কাজ শুরু করেছে। সোমবার তদন্ত কমিটি খুলনা যাচ্ছে।

কমিটির কার্যপরিধিতে বলা হয়েছে— প্রকৃত ঘটনা উদঘাটন; ম্যাজিস্ট্রেট-প্রিজাইডিং কর্মকর্তা, আইন শৃঙ্খলাবাহিনী সদস্যসহ ঘটনায় তাদের ভূমিকা; এজেন্টদের শুনানি; দোষী ব্যক্তি-কর্মকর্তাদের চিহ্নিত করা এবং ভবিষ্যতে পুনরাবৃত্তি রোধে সুপারিশ।

২৭ মে এর মধ্যে প্রতিবেদন দিতে হবে কমিটিকে। ৩০ মে অনিয়মের কারণে বন্ধ থাকা তিন কেন্দ্রে পুনঃভোট অনুষ্ঠিত হবে। মঙ্গলবার এ নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জুকে হারিয়ে মেয়র নির্বাচিত হন আওয়ামী লীগের তালুকদার আব্দুল খালেক।

নির্বাচন কমিশন বলছে, এটা চমৎকার ও সুন্দর নির্বাচন হয়েছে। অনিয়মের কারণে তিনটি কেন্দ্র স্থগিত করা হয়েছে। ভোটের দিন ব্যাপক অনিয়ম হয়েছে অভিযোগ করে বিএনপি ১০০ কেন্দ্রে ফল বাতিলের দাবিও জানায়।

পর্যবেক্ষক সংস্থাগুলোও বলছে, কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটলেও ফল পাল্টানোর মতো অনিয়ম হয়নি।

Check Also

হাজী সেলিমের হাতে জিম্মি লালবাগ?

গতকাল রাতে হাজী সেলিমের পুত্রের হাতে একজন নৌ-বাহিনী কর্মকর্তার লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনার পর মুখ খুলেছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Share
Pin