bnp_jamat

গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থীকে সমর্থন দিয়েছে জামায়াত

গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকারকে আনুষ্ঠানিকভাবে সমর্থন জানিয়েছে জামায়াত। আজ রোববার সকালে নির্বাচনে জামায়াতের প্রার্থী মো. সানাউল্লাহ নির্বাচন থেকে সরে যাওয়ারও ঘোষণা দিয়েছেন।

জামায়াত নেতা ও মেয়র পদপ্রার্থী মো. সানাউল্লাহ জানান, তিনি নির্বাচন থেকে সরে গিয়ে বিএনপির দলীয় প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকারকে সমর্থন জানিয়েছেন। তাঁরা নির্বাচনে হাসান সরকারের পক্ষেই কাজ করবেন।

দলীয় নেতা-কর্মীদের সূত্রে জানা গেছে, আজ বেলা ১১টায় তিনি দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে গাজীপুরের টঙ্গীতে বিএনপির মেয়র পদপ্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকারের বাসায় যান। সেখানে হাসান উদ্দিনের সভাকক্ষে আনুষ্ঠানিকভাবে তাঁকে সমর্থন জানান।

এ সময় তিনি বলেন, ‘জামায়াতে ইসলামী নির্বাচনমুখী একটি দল। কিন্তু আমরা যাতে নির্বাচনে যেতে না পারি, সে জন্য আদালতের মাধ্যমে জামায়াতের নিবন্ধন ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। যার কারণে তারা গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে “গাজীপুর মহানগর উন্নয়ন পরিষদের” নামে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।’

গাজীপুর মহানগর জামায়াতের আমির মো. সানাউল্লাহ বলেন, ‘দেশে আজ গণতন্ত্র নেই। রাষ্ট্রের সব কাঠামো ভেঙে দেওয়া হয়েছে। দেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে ঠুনকো অভিযোগে কারাবন্দী রাখা হলে আমরা সাধারণ নাগরিকেরা কী অবস্থায় আছি, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে ঐক্যবদ্ধ হওয়া ছাড়া কোনো উপায় নেই। তাই দলের হাইকমান্ডের নির্দেশে আমরা জোটগতভাবে গাজীপুর সিটি নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

এ সময় হাসান উদ্দিন সরকারের হাতে একগুচ্ছ ধানের শীষ তুলে দিয়ে তাঁকে ২০-দলীয় জোটের প্রার্থী ঘোষণা করেন মো. সানাউল্লাহ।

ওই অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন গাজীপুর মহানগর জামায়াতের সেক্রেটারি খায়রুল আনাম, নায়েবে আমির জামাল উদ্দিন, সাংগঠনিক সেক্রেটারি আফজাল হোসাইন, মহানগর ইসলামী ছাত্রশিবিরের সভাপতি মিজানুর রহমান, সেক্রেটারি ফখরুল আলমসহ বিভিন্ন ওয়ার্ড ও ইউনিট কমিটির নেতারা।
এ সময়ে বিএনপি নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন গাজীপুর জেলা বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি সালাহ উদ্দিন সরকার, টঙ্গী থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম, গাজীপুর জেলা যুবদলের সিনিয়র সহসভাপতি বসির উদ্দিন প্রমুখ।

এদিকে জামায়াত নেতাদের সাক্ষাৎ চলাকালে ২০-দলীয় জোটের নির্বাচনী প্রস্তুতি নিয়ে আলোচনা করতে হাসান উদ্দিন সরকারের বাসভবনে আসেন গাজীপুর জেলা হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম সম্পাদক মাওলানা নাসির উদ্দিন, জেলা যুব জমিয়তের সভাপতি হাফেজ শাহ আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা মূসা কালিমুল্লাহ, জেলা ছাত্র জমিয়তের সভাপতি মুফতি শাহাদাত হোসেন প্রমুখ।

গাজীপুর সিটি নির্বাচনের নির্বাচন সহায়ক কর্মকর্তা মো. রেজাউল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী প্রার্থিতা প্রত্যাহারের জন্য লোক পাঠিয়ে ছিলেন। কিন্তু গাজীপুর নির্বাচন কমিশনার আসায় ব্যস্ততার জন্য সেই আবেদন গ্রহণ করা সম্ভব হয়নি। তবে শেষ দিন আগামীকাল (আজ সোমবার) চাইলে তিনি প্রার্থিতা প্রত্যাহার করতে পারবেন।

Check Also

bnp-flag

দীর্ঘদিন পর মাঠ উত্তাল করতে চায় বিএনপি, ৬ টি মহাসমাবেশের ঘোষণা

দীর্ঘদিন পর রাজনীতির মাঠ উত্তাল করার পরিকল্পনা নিয়েছে বিএনপি। হঠাৎ করেই নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবিতে দেশের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Share
Pin