খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নিয়ে উদ্বিগ্ন দলের হাই কমান্ড

কারা অন্তরীণ বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নিয়ে গভীর উদ্বিগ্ন দলীয় নেতাকর্মীরা। তার অসুস্থতা নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে ধোঁয়াশার। উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় রয়েছেন বেগম জিয়ার কোটি কোটি ভক্ত অনুরাগী।

বিএনপির পক্ষ থেকে খালেদা জিয়ার অসুস্থতার নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলা হচ্ছে তার শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে সরকার লুকোচুরি খেলছে। দলটি সুচিকিৎসার জন্য বেগম জিয়াকে মুক্তি দেয়ার দাবি জানিয়েছে।

গতকাল শুক্রবার জেলখানায় খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করেছেন দলীয় মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য খুব ভালো নেই জানিয়ে তিনি অবিলম্বে ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে দেয়ার দাবি জানান।

যদিও সরকারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে যে, খালেদা জিয়া অসুস্থ হলে তার চিকিৎসার জন্য সরকার প্রয়োজনীয় সব কিছুই করবে। শুক্রবার আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরদলের ধানমন্ডি কার্যালয়ে নিয়মিত বৈঠক এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য নিয়ম অনুযায়ী যা করা দরকার তাই করা হবে। দেশে সুচিকিৎসা সম্ভব না হলে পাঠানো হবে বিদেশে।

খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ইতোমধ্যে চার সদস্যের মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। বোর্ডের চার চিকিৎসকই ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপতালের। গত রবিবার দুপুরে এই বোর্ডের সদস্যরা কারাগারে বিএনপি নেত্রীকে পরীক্ষা নিরীক্ষা করেন।

মেডিকলে বোর্ডের প্রধান শামসুজ্জামান জানিয়েছেন, খালেদা জিয়ার অবস্থা খুব খারাপ নয়। তবে, তার শরীরে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা রয়েছে। আমরা কিছু পরীক্ষা নিরীক্ষা করিয়েছে, কিছু ওষুধ দিয়েছি।

খালেদা জিয়ার দেশে চিকিৎসা করা সম্ভব নাকি বাইরে নিতে হবে-এমন প্রশ্নে শাসসুজ্জামান বলেন, ‘এই মন্তব্য করার মতো সময় এখনও আসেনি।

মির্জা ফখরুল কারাগারে খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের বলেছেন, ম্যাডামের স্বাস্থ্য খুব ভালো নয়। প্রথম থেকেই আমরা তার স্বাস্থ্য সম্পর্কে খুব উদ্বিগ্ন। তার সমস্যাগুলো বেশ বেড়ে গেছে।

তিনি আরো বলেন, খালেদা জিয়ার এখন হাঁটতেও কষ্ট হয়। তার স্নায়বিক সমস্যাও দেখা দিয়েছে। এর জন্য প্রয়োজনীয় চিকিৎসা যেটা দরকার, দুঃখজনকভাবে সেই চিকিৎসা তিনি এখনো পাচ্ছেন না। কারণ, তার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের সঙ্গে তাকে এখন পর্যন্ত দেখা করতে দেওয়া হয়নি বা স্বাস্থ্য পরীক্ষা করতে দেওয়া হয়নি।

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘এটা আমরা বারবার বলেছি, অবিলম্বে ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের সঙ্গে তার দেখা করতে দেওয়াটা জরুরি। কারণ, তিনি সত্যিকার অর্থেই স্বাস্থ্য সমস্যায় পড়েছেন।

তিনি বলেন, ‘যদিও এর মধ্যে সরকারের পক্ষ থেকে কয়েকজন বিশেষজ্ঞ তাকে দেখতে এসেছিলেন, কিছু পরীক্ষার কথা তারা বলে গেছেন। কিন্তু আমরা মনে করি, যারা নিয়মিত তার চিকিৎসা করেন, তাদের খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা, প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেওয়া দরকার, অবিলম্বে দেওয়া উচিত।

এদিকে, কারাবন্দি খালেদা জিয়ার জন্য মেডিকেল বোর্ড গঠনকে ‘লোক দেখানো’ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ।

মওদুদ বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপারসনকে এত দিন যারা চিকিৎসা দিয়ে আসছেন তাদের দিয়েই তার চিকিৎসা করাতে হবে। কোনো কারণে খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের অবনতি হলে সেই দায় সরকারকে নিতে হবে বলেও হুশিয়ার করেন তিনি।

শুক্রবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় মওদুদ আহমদ বলেন, সরকার মেডিকেল বোর্ড করেছে। এই সরকার মানুষকে দেখানোর জন্য নানা রকমের কৌশল অবলম্বন করেছে। এটা দুরভিসন্ধিমূলক। সরকার যে মেডিকেল বোর্ড গঠন করেছে তা লোক দেখানো।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া এতিমখানা ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ৫ বছরে সাজার রায়ের পর থেকে খালেদা জিয়াকে নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে রাখা হয়েছে। সেখানে তিনিই এখন একমাত্র বন্দি।

আরো পড়ুন: বিএনপি কে চালাচ্ছে বলেই দিলেন মোশাররফ

আরো পড়ুন: খুলনা সিটি নির্বাচনে মঞ্জুকে নিয়ে ঢাকায় নানারকম গুঞ্জন

Check Also

khaleda_zia

খালেদা জিয়ার জামিনের অপ্রকাশ্য যত শর্ত

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অন্তত দু`দিন বলেছেন যে, খালেদা জিয়া এখনও গৃহবন্দি আছেন। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Share
Pin