খালেদার মুক্তির দাবিতে পৃথক কর্মসূচি দেবে ২০ দল

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে পৃথক কর্মসূচি ঘোষণার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ২০ দলীয় জোট। বিএনপির ঘোষিত কর্মসূচির বাইরে তারা পৃথকভাবে এই কর্মসূচি পালন করবেন। কর্মসূচির ধরণ কেমন হবে এ নিয়ে আলোচনা করে জানানো হবে।

শুক্রবার বিকেলে বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে জোটের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। বৈঠক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বৈঠক শেষে বেরিয়ে বিজেপির চেয়ারম্যান আন্দালিব রহমান পার্থ বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আমরা বিএনপির কর্মসূচির বাইরে নতুন কর্মসূচি দেয়ার বিষয়ে আলাপ করেছি। শিগগিরই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে কর্মসূচি ঘোষণা করবো।

জোটের আরেক শরিক ডেমোক্রেটিক লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুদ্দিন মনি বলেছেন, খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

এনপিপির চেয়ারম্যান ফরিদুজ্জামান ফরহাদ বলেন, জোট নেত্রীর মুক্তির দাবিতে ২০ দলীয় জোটের পক্ষ থেকে আলাদা কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। কর্মসূচি ঘোষণার আগে জোটের নেতারা বৈঠক করবেন।

এদিকে বৈঠক শেষে গুলশান কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম অালমগীর বলেছেন, সভায় সর্বসম্মতিক্রমে যে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে তার প্রথমটি হচ্ছে সম্পূর্ণ মিথ্যা সাজানো মামলায় জাল একটি নথির উপর ভিত্তি করে জোটের নেত্রী খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলার রায় দিয়ে পাঁচ বছরের সাজা দেয়া হয়েছে এজন্য ক্ষোভ ও প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।

তিনি বলেন, একইসঙ্গে দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে কারাগারে নেয়ার তীব্র নিন্দা জানানো হয়েছে। এই মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করা হয়েছে।

২০ দলীয় জোটের সভায় বিএনপি যে কর্মসূচি গ্রহণ করেছে সেই কর্মসূচির প্রতি একাত্মতা ঘোষণা করেছেন জানিয়ে বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, দেশনেত্রীর মুক্তির দাবিতে অদূর ভবিষ্যতে ২০ দলীয় জোট কর্মসূচি ঘোষণার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বিএনপির আগামী কর্মসূচি যেগুলো আছে (তিন দিনের) সেসব কর্মসূচিতে একাত্মতা ঘোষণাই নয় অংশ গ্রহণের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

২০ দলীয় জোটের ঐক্যকে আরো প্রসারিত করার জন্য অন্যান্য রাজনৈতিক দলের সঙ্গে তারা (জোট নেতারা) কথা বলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন মির্জা ফখরুল।

সভায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান বক্তব্য রেখেছেন জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, তার (তারেক রহমান) আহ্বান যেটা এসেছে একটা প্লাটফর্ম তৈরি করে জনগণের জোট তৈরি করতে হবে। খালেদা জিয়া শেষ সংবাদ সম্মেলন করে জাতীয় ঐক্যের যে কথা বলেছেন জোটের নেতারা এই বক্তব্য সমর্থন করেছেন।

২০ দলীয়ে জোটের নেত্রী কারাগারে সেক্ষেত্রে জোটের প্রধান কে এমন প্রশ্নের জবাবে বিএনপির এই নীতি নির্ধারক বলেন, জোট নেত্রী খালেদা জিয়া কারাগারে থাকুক বা যেখানেই থাকুক তিনিই জোটের নেত্রী। তিনিই ২০ দলের নেত্রী। এ নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। সমন্বয়ক হিসেবে আমি কাজ করেছিলাম। এখনো করছি।

আইনগত প্রক্রিয়া কতদূর এগুলেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, সার্টিফাইড কপি এখনো পাওয়া যায়নি।

ফখরুল জানান, ২০ দলীয় জোটের সবাই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। যেসব দলের চেয়ারম্যান অসুস্থ তাদের প্রতিনিধিরা এসেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.