khaleda_zia

রায় বিরুদ্ধে গেলেও হার্ডলাইনে যাবে না বিএনপি !

রায় খালেদার বিরুদ্ধে গেলেও বিএনপি আগেভাগে কোনো কর্মসূচি দেবে না। সরকার কি কৌশল নেয়- তা দেখে সিদ্ধান্ত নেবে। তবে হার্ডলাইনে যাবে না। দলটির নীতিনির্ধারকরা মনে করেন, সরকারের ফাঁদে পা দিলে ভবিষ্যৎ নির্বাচনে অংশ নেয়া তাদের পক্ষে সম্ভব না-ও হতে পারে। যেটা হবে দলের জন্য মারাত্মক ভুল সিদ্ধান্ত। তাই অত্যন্ত সতর্ক থাকতে হবে।

আইনি লড়াইয়ের ওপর জোর

দিচ্ছেন বিএনপি নেতারা। মুখে না বললেও বিএনপি নেতারা এটা স্বীকার করেন যে, ২০১৪ সালের নির্বাচনে সরকারকে ‘ওয়াকওভার’ দেয়াটা ভুল ছিল। খালেদা জিয়া তার দলের নীতিনির্ধারকদের বলেছেন, মামলা কীভাবে চলছে বা চলে তা আপনারা সবাই জানেন। তারপরও হঠকারী কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া যাবে না। শাসক দল চেষ্টা করবে আপনাদেরকে নানা উস্কানির মাধ্যমে রাজপথে ঠেলে দিতে।

তখন তারা নানা কৌশল নেবে। তাদের কৌশল হবে বিএনপিকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখা। কার্যনির্বাহী কমিটির গতকালের বৈঠকেও বেগম জিয়া একাধিকবার সতর্কবার্তা উচ্চারণ করেছেন। সমাপনী সংক্ষিপ্ত ভাষণেও এর ওপর জোর দিয়েছেন। নিজের অবস্থান ব্যাখ্যা না করেও বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, যেখানেই থাকি, আপনারা ঐক্যবদ্ধ থাকবেন। দল ভাঙার চেষ্টা যাতে কেউ না করেন সে ব্যাপারে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

বিএনপি মিথ্যাচারের ভাঙা রেকর্ড বাজাচ্ছে

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক যোগাযোগ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি বলেছেন, বিএনপি আগামী নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করলে তাদের নিবন্ধন বাতিল হবে। তাই এখন তারা নানা অজুহাতে মিথ্যাচারের ভাঙা রেকর্ড বাজাচ্ছে। শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কুমিল্লার শাসনগাছা রেলওয়ে ওভারপাসের নির্মাণ কাজ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ৮ই ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলার রায় হবে। এ নিয়ে বিএনপির নেতাকর্মীদের কোনরূপ হয়রানি করা হচ্ছে না। হয়রানির অভিযোগ থাকলে তারা বলুক। তারা (বিএনপি) আজ লা মেরিডিয়ানে দলের নির্বাহী কমিটির সভা করছে।

কেউ তো তাদের বাধা দিচ্ছে না। এসময় উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা সদর আসনের এমপি ও কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরফানুল হক রিফাত, আদর্শ সদর উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আমিনুল ইসলাম টুটুল, সওজ কুমিল্লা জোনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মো. মনির হোসেন পাঠান, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী অরুন আলো চাকমা, নির্বাহী প্রকৌশলী মোফাজ্জল হায়দারসহ জেলা ও পুলিশ প্রশাসনের কর্মকর্তাগণ।

মানবজমিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.