ঢাবির ওই ছাত্রলীগ নেত্রীর ভাগ্যে কী আছে!

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগ নেত্রীদের হাতে ছাত্রী নির্যাতন নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে। এর মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীকে নির্যাতনের ছবি ফেইসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। নির্যাতিত ছাত্রীর পরিবার পুরোপুরি আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী হওয়ায় এনিয়ে অনেকটা বেকায়দায় পড়েছে ছাত্রলীগ। ওই ছাত্রীকে নির্যাতনকারীর ভাগ্যে কী ঘটতে যাচ্ছে সেটাই এখন আলোচনার ইস্যু।

ফেইসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ওই ছাত্রলীগ নেত্রীকে বহিষ্কারের দাবি করা হয়েছে। শুধু ছাত্রলীগ থেকে নয় ঢাবি থেকেও বহিস্কারের দাবি উঠেছে। সেই সঙ্গে তাকে আইনের আওতায় আনা হয়েছে। যদিও ওই নেত্রীর দাবি তিনি কোন নির্যাতন করেননি। বরং তিনি নিজেই আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

জানা গেছে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগ নেত্রীর হাতে নির্যাতিত সেই ছাত্রী শ্রবণা শফিক আওয়ামী লীগের সাবেক এমপির নাতি। তার বাবা মাগুরা জেলা আওয়ামী লীগের ৭১ সদস্যবিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শফিকুজ্জামান বাচ্চু। তিনি আওয়ামী লীগের মনোনয়নে দুইবার সংসদ নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন।

শুধু তাই নয় ওই ছাত্রীর আপন চাচা আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এপিএস সাইফুজ্জামান শেখর। দীপ্তির ফুফু সংসদ সদস্য কামরুন লায়লা জলি। দিপ্তীর মামা মাগুরা পৌরসভার মেয়র খুরশীদ হায়দার টুটুল। নানা ছিলেন মাগুরা আওয়ামী লীগের প্রথম সাধারণ সম্পাদক। ৫ বার এমপি ছিলেন তার দাদা আসাদুজ্জামান। নির্যাতিত ছাত্রীর পরিবার আওয়ামী লীগের হওয়ায় এনিয়ে চাপে রয়েছে ছাত্রলীগ।

এদিকে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে, ঘটনা প্রমাণিত হলে ওই ছাত্রীকে বহিষ্কার করা হতে পারে ছাত্রলীগ থেকে। এব্যাপারে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় হাইকমান্ড অনেকটা চাপের মুখে রয়েছে। এমনকি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের ইমেজ ক্ষুন্ন হওয়ায় তারাও এনিয়ে বিব্রবত অবস্থায় রয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যে নেতাকর্মীদের মধ্যে প্রাথমিক আলোচনা হয়েছে।

অন্যদিকে নিপীড়ক ওই নেত্রী ইতিমধ্যে নিজেকে নির্দোষ প্রমাণের জন্য নেতাকর্মীদের ধর্ণা দিচ্ছেন। তিনি ওই ঘটনায় জড়িত নন বলেও প্রচার করছেন। তবে শেষতক দেখা যাক ওই নেত্রীর ভাগ্যে কী আছে।

উল্লেখ্য, ঢাবি শাখা ছাত্রলীগ নেত্রী বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শ্রাবণী শায়লা দিপ্তী নামে এক ছাত্রীকে নির্যাতন করেছে। তার পোশাক টেনে ধরেছে। এমনকি তার চুল ধরে টানাটানি করেছে। নির্যাতিত ওই ছাত্রী ঢাবির ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড ভালনারেবল স্টাডিজ বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী। ওই ঘটনা নিয়ে নিন্দার ঝড় উঠেছে।

এর আগে মঙ্গলবার সকালে অধিভুক্ত কলেজ বাতিলের দাবিতে আন্দোলনরত ছাত্রীদের নিপীড়নকারী ছাত্রলীগ নেতাদের বহিষ্কার, প্রক্টরের পদত্যাগ, শিক্ষার্থীদের নামে দেয়া মামলা প্রত্যাহার এবং তদন্ত কমিটিতে শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধি রাখার দাবিতে ‘নিপীড়ন বিরোধী শিক্ষার্থীরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির কার্যালয় ঘেরাও করে তাকে অবরুদ্ধ করে রাখেন।

একপর্যায়ে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা সেখানে প্রবেশ করে আন্দোলনকারীদের ব্যাপক মারধর করে ভিসিকে উদ্ধার করেন। এসময় ছাত্রীদের গায়েও হাত তোলা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠে। এনিয়ে দেশজুড়ে নিন্দার ঝড় উঠেছে।

ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.