khaleda_03

খালেদা বললেন আমি জজ কোর্টেই থাকব

ঙ্গলবার বেলা ১১ টা ৩৮ মিনিট। রাজধানীর বকশীবাজারের আলিয়া মাদরাসা মাঠে স্থাপিত ঢাকার ৫ নং বিশেষ জজ ড. আখতারুজ্জামানের আদালতে উপস্থিত হন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। উপস্থিত হওয়ার পর তিনি জানতে পারলেন আদালত দুপুর ২ টায় বসবে। এ সময় তার আইনজীবী আমিনুর রহমান ও জাকির হোসেন দুদকের আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজলের সঙ্গে পরামর্শ করতে থাকেন, ম্যাডাম (খালেদা জিয়া) তো আদালতে চলে আসছে তাহলে এখন কী করা যায়। ম্যাডাম কী এতক্ষণ আদালতে বসে থাকবেন না বাসায় চলে যাবেন।

একপর্যায়ে দুদকের আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল বলেন, খালেদা জিয়া তো হাজিরা দিয়েছেন। আপনারা আবেদন দেন। ম্যাডাম এখন চলে গেলে আমাদের কোন আপত্তি নেই। অপর দিকে খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর তৃতীয় মুত্যৃবার্ষিকী বুধবার হওয়ায় খালেদা জিয়া আদালতে উপস্থিত হতে পারবেন না বলে দুদকের আইনজীবীকে বললেন খালেদার আইনজীবীরা। দুদকের আইনজীবী বললেন, তিনি কালকে না আসলে আমাদের কোনো আপত্তি নেই।

এ বিষয়টি আইনজীবীরা খালেদাকে জানান। খালেদা জিয়া প্রতি উত্তরে বলেন, আমি জজ কোর্টেই থাকব। কোর্ট শেষ না হওয়া পর্যন্ত আদালত থেকে যাব না। এরপর প্রায় আড়াই ঘণ্টা খালেদা জিয়া তার জন্য নির্ধারিত চেয়ারে বসে থাকেন। মাঝে মাঝে আইনজীবী ও বিএনপির নেতারা খালেদা জিয়ার সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন।

বেলা ২ টার দিকে বিচারক এজলাসে বসেন। এরপর জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় চতুর্থ দিনের মত ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদের পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন শুরু করেন আইনজীবী আহসান উল্লাহ। বেলা ৩ টা ৫ মিনিটে আইনজীবী আহসান উল্লাহ বিচারকে উদ্দেশ করে বললেন, আজ আর পারছি না। আজকের মতো সময় দেন। বিচারকের সম্মতিতে তিনি আজকের মতো যুক্তি উপস্থাপন শেষ করেন।

এরপর খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া বিচারককে বলেন, আগামীকাল ম্যাডামের ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী। কিছু ধর্মীয় কাজ থাকে। তাই কালকের জন্য কোর্টের কার্যক্রম স্থগিত করলে ভালো হয়। বিচারক বলেন, ম্যাডাম কালকে পর্যন্ত দুই মামলায় জামিনে থাকবেন। অন্য আসামিদের পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন চলছে। ম্যাডামের আসার দরকার নেই। এরপর বেলা ৩ টা ১০ মিনিটের দিকে খালেদা জিয়া আদালত কক্ষ ত্যাগ করেন।

জামিনে থাকার পরও কাল হাজিরা দিবেন খালেদা
জিয়া অরফানেজ ও চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় আগামীকাল বুধবার আদালতে হাজিরা দিবেন খালেদা জিয়া। খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন।

আদালতে খালেদা : সময় পরিবর্তন, জানেন না কেউ
জিয়া অরফানেজ ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির দুই মামলায় হাজিরা দিতে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া মঙ্গলবার সকালে আদালতে উপস্থিত হন। পূর্বের ঘোষণা অনুয়ায়ী বেলা ১১ টায় তার দুই মামলার বিচার কার্যক্রম শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তিনি সকালে আদালতে এসে জানতে পারেন আদালত বসবে দুপুর ২টায়।

আদালতের পেশকার বলেন, গত বছর যেসব আইনজীবী মারা গেছেন তাদের স্মরণসভা আজ জেলা জর্জ কোর্ট প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এজন্য আজ আদালত দুপুর ২টায় বসবে। দুদকের আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল বলেন, আজ দুপুরে যে আদালত বসবে সে বিষয়টি আমরা জানতাম না। আমরা জানতাম বেলা ১১ টায় আদালত বসবে।

অপরদিকে খালেদা জিয়ার আইনজীবী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, আমরা জানি যে, ১১ টায় কোর্ট বসবে কিন্তু এখানে এসে শুনি কোর্ট বসবে দুপুর ২টায়। এ বিষয়টি আমাদের আগে জানানো হয়নি। ঘোষণা অনুযায়ী সব কোর্টের বিচার কার্যক্রম দুপুর ২ টা পর্যন্ত বন্ধ থাকার কথা থাকলেও একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার কার্যক্রম বেলা ১২টা থেকে শুরু হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা মহানগরের পাবলিক প্রসিকিউটর আব্দুল্লাহ আবু বলেন, ওই কোর্ট হয়ত এ নোটিশ পায়নি। তাই তারা কার্যক্রম চালাচ্ছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.