মনোনয়ন সংগ্রহ না করার সিদ্ধান্ত তাবিথ আউয়ালের

হাইকোর্ট ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচন ৩ মাসের জন্যে স্থগিত করার পর এ নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থী তাবিথ আউয়াল মনোনয়ন না নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। দলটির মহাসচিব নির্বাচন কমিশন ভোটার তালিকা প্রকাশ করতে না পারায় বিষয়টিকে ইসির চরম ব্যর্থতা বলে অভিহিত করেছেন। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, তারা এ নির্বাচনে কাউন্সিলরদের নাম ঘোষণা করছেন না।

আজ বুধবার সকালে বিচারপতি নাঈমা হায়দার ও বিচারপতি জাফর আহমেদের হাইকোর্ট বেঞ্চ ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের উপ-নির্বাচন ৩ মাসের জন্য স্থগিতাদেশ এর রায় ঘোষণা করেন।

স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) আইন, ২০০৯ এর ৫ (৩) উপধারা বলে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলেও হাইকোর্ট রায়ে উল্লেখ করেছেন।

এদিকে, রায়ের প্রতিক্রিয়ায় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) উপ-নির্বাচনের স্থগিতাদেশ যতদিন বহাল থাকবে ততোদিন মনোনয়ন সংগ্রহ না করার সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন বিএনপি মনোনীত প্রার্থী তাবিথ আউয়াল।

হাইকোর্টের রায়ের পরে বিএনপি প্রার্থী তাবিথ আউয়াল তার নির্বাচনী কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

এসময় তিনি আরটিএনএনকে বলেন,আদালত নির্বাচনের ওপর স্থগিতাদেশ প্রদান করেছে। সে কারণেই এখন মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

তিনি আরো বলেন, সরকার পরাজয়ের ভয়ে অনেক নাটক করছে যা জনগণের কাছে স্পষ্ট। আমরা সব সময় নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত আছি। আইনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

অন্যদিকে, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র পদের উপ-নির্বাচন স্থগিত হওয়ার বিষয়টিকে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) ‘চরম ব্যর্থতা’ হিসেবে দেখছে বিএনপি।

ওই নির্বাচন তিন মাসের জন্য স্থগিত করে বুধবার সকালে হাইকোর্টের দেওয়ার আদেশের প্রতিক্রিয়ায় রাজধানীর বকশীবাজারে কারা অধিদফতরের প্যারেড মাঠে স্থাপিত অস্থায়ী আদালত প্রাঙ্গণে এ মন্তব্য করেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় সাংবাদিকদের তিনি বলেন, সীমানা নির্ধারণসহ অন্যান্য সমস্যা সামাধান না করেই ইসি উপ নির্বাচনরে তফসিল ঘোষণা করেছিল। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র পদের উপনির্বাচন স্থগিত হওয়ার বিষয়টি ইসির চরম ব্যর্থতা।

ফখরুল বলেন, সরকারও বিভিন্ন জরিপ চালিয়ে বুঝতে পেরেছে- তারা এ নির্বাচনে জয়ী হতে পারবে না। এ কারণেই তারা এই সুযোগটা নিয়েছে।

নির্বাচন স্থগিত হওয়ায় সরকার লাভবান হবে বলেও মন্তব্য করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল।

আবার এই রায়ের প্রতিক্রিয়ায় আওয়ামী লীগের কাউন্সিলরদের নাম ঘোষণা করা হবে না বলে জানিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের উপ-নির্বাচন হাইকোর্ট থেকে ৩ মাসের জন্য স্থগিতাদেশ দেওয়ার পর ধানমন্ডিতে দলীয় সভাপতির কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ওবায়দুল কাদের এ কথা জানান।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, আদালত নির্বাচনের ওপর স্থগিতাদেশ প্রদান করেছে। এমতাবস্থায় তালিকা প্রকাশ করলে তা আদালত অবমাননা হতে পারে। সে কারণেই এখন প্রার্থীদের তালিকা ঘোষণা করা হচ্ছে না।

কিন্তু প্রার্থী তালিকা মনোনয়ন বোর্ডের মাধ্যমে চূড়ান্ত করা হয়েছে বলে জানান তিনি। ওবায়দুল কাদের বলেন, কোর্টের স্থগিতাদেশ উঠিয়ে নেয়ার পর এই তালিকা প্রকাশ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.