তিনজনই ‘আশাবাদী’, তবে দলের সিদ্ধান্তই মেনে নেবেন

ঢাকা উত্তরের মেয়র পদে বিএনপির মনোনয়ন চান তাবিথ আউয়াল, আসাদুজ্জামান রিপন ও মেজর (অব.) আখতারুজ্জামান। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রথম নির্বাচনে মেয়র পদে প্রার্থী হয়েছিলেন তাবিথ আউয়াল। বিএনপি সমর্থন পেয়েছিলেন তিনি। এবারও নির্বাচনে অংশ নিতে চান তিনি। চেয়েছেন বিএনপির মনোনয়ন। তিনি জানান, তিনি ‘আশাবাদী।’

একই আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন বিএনপির বিশেষ সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন এবং সাবেক সংসদ সদস্য মেজর (অব.) আখতারুজ্জামান। তাঁর আজ রোববার মেয়র পদে প্রার্থী হওয়ার জন্য বিএনপির মনোনয়ন চেয়ে ফরম সংগ্রহ করেছেন। তাঁরা তিনজনই আশাবাদী, তবে জানিয়েছেন, দল যে সিদ্ধান্ত নেবে তাঁর জন্যই কাজ করবেন তাঁরা।

বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়াল বলেন, ‘বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল থেকে মনোনয়ন পাবো, এ ব্যাপারে আমি বেশ আশাবাদী। এর আগের নির্বাচনেও আমাকে এই দল সমর্থন দিয়েছিল।’

তাবিথ আউয়াল আরো বলেন, ‘দল যাকে প্রার্থী করবে আমি এবং আমার সাপোর্টাররা মিলিতভাবে ওই প্রার্থীর জন্য কাজ করব।’

গতবার নির্বাচনের সময় ভোট বর্জন করেছেন এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তাবিথ বলেন, ‘আগে দল থেকে মনোনয়ন কনফার্ম হোক। তারপর আগামী নির্বাচন ও গত নির্বাচন নিয়ে কথা বলব।’

যদি দল থেকে মনোনয়ন না পান তখন দলের মনোনীত প্রার্থীর পক্ষে কাজ করবেন কি-না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘দল যাকে মনোনয়ন দেবে তাঁর পক্ষেই কাজ করব।’

মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করার পর ড. আসাদুজ্জামান রিপন বলেন, ‘আমি ছাত্রজীবন থেকে সংগঠন করে এসেছি। সবসময় স্বৈরাচারী আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে অবস্থান এবং দলের দুঃসময়ে সামান্য অবদান রাখার চেষ্টা করেছি। আমার লেখাপড়া, সাংগঠনিক দক্ষতা এবং বিভিন্ন দেশের নগর উন্নয়ন সম্পর্কে আমার অভিজ্ঞতাসহ সার্বিক দিক বিবেচনা করে দলীয় মনোনয়ন পাবো বলে আশা করি।’

আসাদুজ্জামান রিপন বলেন, ‘আমি অবিভক্ত ঢাকা মহানগরী থাকাকালীন সময় থেকে দলের চেয়ারপারসনের কাছে আগ্রহ প্রকাশ করি। আমি যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন শহরসহ অনেক দেশের নগর ভ্রমণ করেছি। ওখানকার নগর ব্যবস্থাপনা, পরিকল্পনা সম্পর্কে অভিজ্ঞতা অর্জন করেছি। সেখানকার মেয়রদের সঙ্গে কথা বলেছি। এতে আমার নগর পরিচালনায় অভিজ্ঞতা আছে। এসব দিক ভেবে আমি আমাদের নগর উন্নয়নে কাজ করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছি। আমার বিশ্বাস দলীয় মনোনয়ন পাবো।‘

মেজর (অব.) আখতারুজ্জামান বলেন, ‘প্রথমে শুকরিয়া আদায় করছি পরম করুনাময় আল্লাহ তায়ালার নিকট তিনি আমাকে সুযোগ করে দিয়েছেন বিএনপির মনোনয়ন কেনার জন্য। ধন্যবাদ জানাচ্ছি দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে তিনি আমাকে অনুমতি দিয়েছেন মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়ার জন্য। আমরা আগেও বলেছি ২০১৮ সাল পরিবর্তনের বছর। পরিবর্তন আনতে হবে। পরিবর্তন ইনশাল্লাহ হবে। পরিবর্তন হবে জাতীয়তাবাদী শক্তির পক্ষেই।’

মনোনয়ন না পেলে দল যাকে মনোনয়ন দেওয়া হবে তাঁর পক্ষে কাজ করার ঘোষণা দেন মেজর (অব.) আখতারুজ্জামান।

ওই তিনজন ছাড়াও বিএনপির মনোনয়ন চেয়েছেন দলের সহ প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক শাকিল ওয়াহেদ এবং ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সভাপতি এম এ কাইয়ুম।

উৎসঃ   এনটিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.