ডিএনসিসিতে প্রার্থী প্রত্যাহার করবে জামায়াত

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি) উপ-নির্বাচনে ২০ দলীয় জোট শরিক জামায়াত তাদের প্রার্থিতা প্রত্যাহার করবে। সোমবার রাতে খালেদা জিয়ার সঙ্গে জোটের শীর্ষ নেতাদের বৈঠকে এমন সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানা গেছে।

গত ৩ জানুয়ারি ঢাকা উত্তরের আমির ও নির্বাহী পরিষদ সদস্য মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিনকে দলীয় সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা দিয়েছিল জোটের অন্যতম শরিক জামায়াত।

উপ-নির্বাচনে প্রার্থী ঘোষণার পর রাজনৈতিক মহলে এ নিয়ে বেশ উত্তাপও ছড়িয়েছিল। নিবন্ধন বাতিল হওয়া জামায়াত হঠাৎ করেই সম্ভাব্য মেয়র নির্বাচনে প্রার্থী ঘোষণা করায় জোটের অন্য শরিকরাও দ্বিধায় পড়ে যান।

তবে সব দ্বিধার অবসান ঘটিয়ে খালেদার সঙ্গে অনুষ্ঠিত বৈঠকে প্রার্থী প্রত্যাহার করার ঈঙ্গিত দেন বৈঠকে অংশ নেয়া জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদের সদস্য আবদুল হালিম।

বৈঠকের শুরুতেই জোটের অন্য শরিকরা জামায়াতের সম্ভাব্য প্রার্থী ঘোষণা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। পরে আবদুল হালিম বলেন, নির্বাচন কমিশন থেকে তফসিল ঘোষণার আগে অনেকেই সম্ভাব্য প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হয়। আমরাও করেছি। তবে জোটগতভাবে নির্বাচন করলে আমরা আমাদের প্রার্থিতা প্রত্যাহার করবো।

খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্য করে হালিম আরও বলেন, ম্যাডাম আমাদের দলের শীর্ষ নেতারা কারাগারে আছেন। আপনার সঙ্গে যোগাযোগ করার সুযোগও হয় না। আমরা জোটের সঙ্গেই আছি। আপনি যে সিদ্ধান্ত নেন সেটাই মেনে নেবো।

কবে হবে আন্দোলন, বিএনপিকে কাদের

বিএনপির আন্দোলনের হুমকির বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, কবে হবে আন্দোলন? দেখতে দেখতে ৯ বছর, আন্দোলন হবে কোন বছর। আন্দোলন করে সরকারের পতন করবেন তো আন্দোলন কবে হবে। মরা গাংঙ্গে জোয়ার আসে না।

মঙ্গলবার দুপুরে ঠাকুরগাঁও জেলা পরিষদ অডিটরিয়ামে অসহায় শীতার্তদের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সেতুমন্ত্রী বলেন, বিএনপি বারবার সংলাপের কথা বলে, কিন্তু সংলাপের দরজা তো বিএনপি নিজেই বন্ধ করে দিয়েছে। তারা কি গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে, তারা কি সুস্থ রাজনীতি করে। তারা এত অশালীন যে দেশের প্রধানমন্ত্রীকে বাহিরে রেখে গেট বন্ধ করে দেয়।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি এখন বলে বেড়াচ্ছে আওয়ামী লীগ বিএনপিকে নির্বাচন করতে দিতে চায় না। কিন্তু নির্বাচন আপনার গণতান্ত্রিক অধিকার, নির্বাচন আপনার সাংবিধানিক অধিকার, নির্বাচন আপনার নাগরিক অধিকার। নির্বাচন কি দয়ার দান, এটা বিএনপির রাজনৈতিক দল হিসাবে নিবন্ধিত অধিকার।

অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক এমপি, খালিদ মাহমুদ চেীধুরী এমপি, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণবিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, ঠাকুরগাঁও-১ আসনের এমপি ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন এমপি, ঠাকুরগাঁও-৩ আসনের এমপি ইয়াসিন আলী, সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি সেলিনা জাহান লিটা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

পরে ‘মানবতার পাশে মানবতার মা’ এ স্লোগানকে সামনে রেখে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে পাঁচ হাজার কম্বল ও নগদ ২০০ টাকা করে ১০ লাখ টাকা অসহায় শীতার্তদের মধ্যে বিতরণ করা হয়।

jagonews24

Check Also

খালেদা জিয়ার বিরক্তি, অভিমান, অনাগ্রহ

বিএনপি নেতাদের উপর বেগম জিয়া বিরক্ত। ছেলের উপর তার একরাশ অভিমান আর রাজনীতির উপর তার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Share
Pin