mossaraf_khon

সরকারের ষড়যন্ত্রে খালেদা জিয়া এখন আদালতের কাঠগড়ায়

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সাবেকমন্ত্রী ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, ওয়ান এলেভেনের সময় বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও দেশনেত্রী বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধেও মামলা হয়েছিল।

সেসময় শেখ হাসিনার আপনজন শেখ সেলিম ঘুষ ও দুর্নীতির সাক্ষী দিয়েছিলেন আর খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে কোনো সাক্ষী খুঁজে পায়নি। পরে ১/১১ সরকারের সাথে আঁতাত করে ক্ষমতায় এসে প্রধানমন্ত্রী নিজের মামলাসহ সাত হাজার মামলা প্রত্যাহার করে নেন।

অন্যদিকে দেশনেত্রীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে সপ্তাহে ৩ দিন আদালতের কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে রেখে হয়রানী করা হচ্ছে, যা সরকারের ষড়যন্ত্রেরই একটি অংশ। বর্তমান অবৈধ সরকারের প্রধান ক্ষমতালোভী স্বৈরাচার শেখ হাসিনা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া সহ বিএনপি নেতা-কর্মীদের জেলে ঢুকিয়ে নির্বাচন করার ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। সরকার জানে না বিএনপি কে বাইরে রেখে এদেশে একাদশ নির্বাচন করতে দেয়া হবে না।

বুধবার বরিশাল নগরীর অশ্বিনী কুমার টাউন হলে মহানগর বিএনপি আয়োজিত কর্মী সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসবকথা বলেন।

বরিশাল মহানগর বিএনপি সভাপতি ও কেন্দ্রীয় যুগ্নমহাসচিব অ্যাডভোকেট মোঃ মজিবর রহমান সরোয়ারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মী সভায় আরো বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় বিএনপি ভাইস চেয়ারম্যান সাবেকমন্ত্রী বেগম সেলিমা রহমান, কেন্দ্রীয় বিএনপি সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. বিলকিস জাহান শিরীন, সহসাংগঠনিক সম্পাদক মাহাবুবুল হক নান্নু,

বরিশাল সিটি মেয়র মোঃ আহসান হাবীব কামাল, সাবেক সংসদ ও উত্তর জেলা বিএনপি সভাপতি মেজবা উদ্দিন ফরহাদ, বরিশাল দক্ষিণ জেলা সভাপতি আলহাজ এবায়েদুল হক চাঁন, সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. আবুল কালাম শাহিন, মহানগর সহ-সভাপতি মনিরুজ্জামান ফারুক,

মহানগর ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জিয়াউদ্দিন সিকদার, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আনায়ারুল হক তারিন, অ্যাড. আলি আহম্মেদ. অ্যাড. আবুল কালাম আজাদ, এ্যাড. মহসিন মন্টুু, মহানগর যুবদল সভাপতি অ্যাড. আকতারুজ্জামান শামীম প্রমুখ।

প্রধান অতিথি এসময় আরো বলেন, শেখ হাসিনার অধীনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরী করে নির্বাচন হতে পারে না। লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরী করতে হলে সংসদ ভেঙ্গে দিতে হবে। সরকার গুম, খুন আর বিএনপি নেতা-কর্মীদের একের পর এক হত্যা করে বিএনপি কে দমাতে না পেরে দেশনেত্রীকে রাজনৈতিক ভাবে হয়রানি করে বিএনপি দুর্বল করার চেষ্টা করে যাচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, সরকার মিথ্যা মামলায় বেগম জিয়াকে সাজা দেয়ার চেষ্টা কছছে, এর ফলাফল ভালো হবে না। তিনি সরকারকে মনে করিয়ে দিয়ে বলেন ২০১৪ সালের তথাকথিত নির্বাচন আর ২০১৯ সালের নির্বাচন এক হবে না। ২০১৮ সালের নির্বাচনের মাধ্যমে এদেশের আইন শৃংখলা উন্নয়ন সহ জনগনের সরকার প্রতিষ্ঠা করবে বিএনপি।

অপরদিকে একইস্থানে বিকেলে প্রধান অতিথি ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বরিশাল দক্ষিণ জেলা বিএনপি কর্মীসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন।

Check Also

নির্বাচন পর্যন্ত মাঠে থাকবে বিএনপি : জাহাঙ্গীর

ঢাকা-১৮ আসনে উপনির্বাচনে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী এসএম জাহাঙ্গীর হোসেন বলেছেন, আওয়ামী লীগের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Share
Pin