bnp-flag

সমাবেশের দিন গণপরিবহন বন্ধ না করতে সরকারের প্রতি আহ্বান বিএনপির

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশর দিন (১২ নভেম্বর) গণপরিবহন বন্ধ না করতে সরকারের প্রতি আহ্বান বিএনপির।শুক্রবার বিকেলে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশস্থল পরিদর্শনের পর বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস এই কথা বলেন।১২ নভেম্বরের সমাবেশে লোক সমাগম কেমন হবে এমন প্রশ্নের জবাবে মির্জা আব্বাস বলেন, সরকার তো সব কাজে বাধা দেয়। ম্যাডামের দেশে ফেরার সময় বিমানবন্দরে যেতে নেতাকর্মীদের বাধা দেয়া হয়। এরপরও সেদিন কিভাবে নেতাকর্মীদের ঢল নেমেছিল তা দেশবাসী দেখেছে। এবার যদি সরকার বাধা না দেয় তাহলে লোক সমাগম অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে যাবে।

এসময় তিনি সমাবেশে কোন প্রকার বাধা না দিয়ে সহযোগিতা করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘কি প্রয়োজন বাধা দেয়ার? সমাবেশ করতে দিন নির্বিঘ্নে। জনগণের সমাবেশ করতে দিন এরপর হয়তো আপনারাও করবেন। জনগণই সবকিছু বিচারক করুক। গণতান্ত্রিক আচরন করুন।প্রায় ১৯ মাস পর বিএনপি প্রকাশ্যে এমন একটি সমাবেশ আয়োজনের সুযোগ পাচ্ছে।

এদিকে লক্ষ্য রেখে মির্জা আব্বাস বলেন, ‘আমাদের মধ্যে স্বভাবতই আনন্দ কাজ করছে। সারাদেশ থেকে লোকজন আসবে। আশা করবো সরকার জল, সড়ক, রেলপথ কোথাও বাধা দিবে না।’

নিরাপত্তা নিয়ে বলতে গিয়ে মির্জা আব্বাস আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এর উদ্বৃতি টেনে বলেন, ‘বিএনপি অন্তত আওয়ামী লীগের মতো বিশৃংখল কোন দল নয়। আমরা সুশৃংখলভাবে সমাবেশ করতে চাই। তবে তার বক্তব্যে ভিন্ন কিছুর ইঙ্গিত আছে মনে হচ্ছে। তারা নিজেরা যেন আমাদের ভেতরে কোন ধরনের অপ্রীতিকর কিছু না ঘটায়। সরকার ও আইনশৃংখলা বাহিনীর নিকট আশা করবো যেন সহযোগিতা করেন। আমরা রাজনৈতিক আচরন আশা করি।’এসময় বিএনপির ভাইস সেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান, জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, প্রচার সম্পাদক শহিদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানি, যুগ্ম সম্পাদক ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের সভাপতি হাবিব উন নবী খান সোহেল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

শেখ হাসিনা মমতাময়ী আর খালেদা জিয়া মিথ্যাবাদী – নাসিম

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে মমতাময়ী আর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মিথ্যাবাদী উল্লেখ করে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, ইউরোপের মতো ধনী দেশ যেখানে এক লাখ শরণার্থী আশ্রয় দিতে ভয় পেয়েছে সেখানে শেখ হাসিনা মায়ের মমতা দিয়ে লাখ লাখ রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দিয়েছেন। সংসদে দাঁড়িয়ে তিনি বলেছেন- প্রয়োজন হলে খাবার ভাগ করে খাব তবুও রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেব।

শুক্রবার সন্ধ্যায় জামালপুরে শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজের নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যকালে এসব কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়া তিন মাস পর লন্ডন থেকে ঘুম ভেঙে এসে সহায়তার নামে লাখ লাখ টাকা অপচয় করে কক্সবাজারে গিয়ে বললেন আমরা নাকি কিছুই করিনি। আসলে খালেদা জিয়া একজন মিথ্যাবাদী। আগামী নির্বাচনে তার এই মিথ্যার জবাব এদেশের জনগণ দেবে।

শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের প্রিন্সিপাল প্রফেসর ডা. মো. আব্দুল ওয়াকিলের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম, সংসদ সদস্য আলহাজ রেজাউল করিম হীরা, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বাকী বিল্লাহ, সিভিল সার্জন ডা. মোশায়ের উল ইসলাম, পৌর মেয়র মির্জা সাখাওয়াতুল আলম মনি প্রমুখ।

এর আগে মন্ত্রী এক হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ ও ৫শ’ শয্যা বিশিষ্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন।

উৎসঃ   mzamin

Check Also

‘হাজী’ পরিবারের বিস্ময়কর উত্থান

পিতার দুই সংসারের দ্বিতীয় পক্ষের সন্তান তিনি। অভাব-অনটনে বেড়ে ওঠা। অর্থভাবে লেখাপড়া করতে পারেননি। কিশোর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Share
Pin