dudu

‘দুই প্রস্তুতি’র আহবান দুদুর

নেতা-কর্মীদের নির্বাচন ও আন্দোলন দুটোর জন্যই প্রস্তুত হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু। শুক্রবার (১ ডিসেম্বর) দুপুরে যশোরের একটি হোটেলে দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে মত বিনিময়কালে তিনি এ আহ্বান জানান। এ সময় নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘আপনারা সকল ভেদাভেদ ভুলে তৈরি হোন। সামনে আন্দোলন ও নির্বাচন।’

বিএনপির এই শীর্ষ নেতা অভিযোগ করে বলেন, ‘ক্ষমতা হারানোর ভয়ে আতঙ্কিত হয়ে সরকার নতুন করে বিএনপি নেতা-কর্মীদের উপর হামলা, মামলা, আক্রমণ শুরু করেছে। বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আগের দিন যশোরে ৬০ নেতা-কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রতিদিন দেশের কোথাও না কোথাও বিএনপি নেতা কর্মীদের মিথ্যা মামলায় গ্রেফতার ও নির্যাতন করা হচ্ছে। এভাবে স্বাধীন একটি দেশ চলতে পারে না।’

শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়া এদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী।এই জনপ্রিয়তার কারণে সরকার দল নিরপেক্ষ নির্বাচন দিতে ভয় পাচ্ছে। তবে আগামী নির্বাচন নির্দলীয় সরকারের অধীনেই হবে।’

কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ‘বাংলাদেশের সব কিছুর সমাধান হচ্ছে একটি পরিবর্তন। গণতন্ত্রের, অর্থনৈতিক লুটপাটের এই সংকট থেকে বেরিয়ে আসতে হলে আমাদের একটি পরিবর্তন দরকার। আর সেই পরিবর্তনের নেতৃত্ব দিচ্ছেন আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া।’

মতবিনিময়কালে আরও উপস্থিত ছিলেন-জাসাসের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কণ্ঠশিল্পী মনির খান,যশোর জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন,কৃষক দলের জেলা সভাপতি আবু সালে, সাধারণ সম্পাদক মোকবুল হোসেন, কেন্দ্রীয় সহ-দফতর সম্পাদক এসকে সাদী প্রমুখ।

ব্রেকিংনিউজ

না.গঞ্জে যুবদলের মিছিলে পুলিশের লাঠিচার্জে আহত ৭

নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবদলের বিক্ষোভ মিছিল পুলিশের লাঠিচার্জ করেছে পুলিশ। এতে আহত হয়েছেন জেলা যুবদলের সভাপতিসহ ৭ জন যুবদলের নেতাকর্মী। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে এ বিক্ষোভ ডাকা হয়েছিল।

শুক্রবার সকাল ১১টায় নারায়ণগঞ্জ শহরের জিমখানা মাঠ এলাকা থেকে জেলা যুবদলের সভাপতি মোশারফ হোসেনের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিলটি বের হয়। মিছিলটি নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের সামনে আসলে পুলিশ তাতে বাধা দেয় এবং লাঠিচার্জ করে নেতাকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এ সময় পুলিশের সাথে যুবদলের নেতাকর্মীদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

পুলিশের বেদম লাঠিচার্জে আহত হয়েছেন জেলা যুবদলের সভাপতি মোশারফ হোসেন, ফতুল্লা থানা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান মাসুদ, জেলা যুবদল নেতা অ্যাডভোকেট একেএম ওমর ফারুক নয়নসহ সাতজন আহত হয়েছেন। আহতরা স্থানীয় হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

জেলা যুবদলের সভাপতি দাবি করেছেন পুলিশ অহেতুক মিছিলে লাঠিচার্জ করে তাদের ৭/৮ জন নেতাকর্মীকে আহত করা হয়। নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহীন শাহ পারভেজ জানান, কোনো প্রকার অনুমতি ছাড়াই যুবদলের নেতাকর্মীরা সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের উদ্দেশ্যে মিছিল বের করলে পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়া হয়েছে।

অন্যদিকে বিকেলে একই ইস্যূতে নারায়ণগঞ্জে পুলিশের চোখকে ফাঁকি দিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেছে মহানগর যুবদলের নেতাকর্মীরা।

শুক্রবার ৩টায় শহরের মিশনপাড়ায় মহানগর যুবদলের আহবায়ক কাউন্সিলর মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল করে নেতাকর্মীরা। পরে মিছিলটি শহরের ডন চেম্বার ঘুরে আবার মিশনপাড়া মোড়ে এসে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে।

ঢাকাটাইমস

Check Also

নির্বাচন পর্যন্ত মাঠে থাকবে বিএনপি : জাহাঙ্গীর

ঢাকা-১৮ আসনে উপনির্বাচনে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী এসএম জাহাঙ্গীর হোসেন বলেছেন, আওয়ামী লীগের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Share
Pin