rongpur_parthi

রসিক নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন বিএনপির প্রার্থী বাবলা

রংপুর সিটি কর্পোরেশন (রসিক) নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী কাওসার জামান বাবলার অংশ নিতে আর কোনো বাধা নেই। সোনালী ব্যাংকের দায়েরকৃত অভিযোগের শুনানি শেষে বৃহস্পতিবার বিকেলে বাবলার নির্বাচনে অংশ নিতে বাধা নেই মর্মে রায় দেন রংপুর বিভাগীয় কমিশনার কাজী হাসান আহমেদ।

এর আগে গত ২৬ নভেম্বর যাচাই-বাছাই শেষে ছয় মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল করে নির্বাচন কমিশন। তবে ওই বাতিলকৃত ছয় মেয়র প্রার্থীর মধ্যে কাওসার জামান বাবলা ছিলেন না। নির্বাচন কমিশন কর্তৃক বাবলার মনোনয়ন বৈধ ঘোষণার পর গত মঙ্গলবার ঋণখেলাপের অভিযোগ এনে রংপুর বিভাগীয় কমিশনার বরাবর চিঠি দেয় সোনালী ব্যাংক কর্তৃপক্ষ।

এরই প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার উভয় পক্ষের উপস্থিতিতে শুনানি শেষে রসিক নির্বাচনে অংশ নিতে কাওসার জামান বাবলার কোনো বাধা নেই বলে রায় দেন বিভাগীয় কমিশনার কাজী হাসান আহমেদ।

তিনি বলেন, কাওসার জামান বাবলার মনোনয়ন বিষয়ে রিটার্নিং অফিসার যে বৈধতা দিয়েছেন তা বহাল রাখা হয়েছে।

বাবলার আইনজীবী ব্যারিস্টার বদরুদ্দোজা বলেন, যেহেতু বাংলাদেশ ব্যাংকের সার্কুলার অনুযায়ী কাওসার জামান বাবলা নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত ঋণখেলাপি না এবং সোনালী ব্যাংক কর্তৃপক্ষ তাদের স্বপক্ষে প্রয়োজনীয় কাগজ দেখাতে পারেনি সেহেতু আইন অনুযায়ী বাবলার মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে।

এ বিষয়ে কাওসার জামান বাবলা বলেন, গত ২৬ নভেম্বর রিটার্নিং অফিসার ও আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা সুভাষ চন্দ্র সরকারের কাছে ঋণখেলাপির অভিযোগ এনে তার মনোনয়নপত্র বাতিলের আবেদন করে সোনালী ব্যাংক। তবে অভিযোগের ব্যাপারে তারা ওই দিন প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখাতে ব্যর্থ হয়।

রংপুর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা সুভাষ চন্দ সরকার বলেন, যাচাই-বাছাইয়ের সময়সীমা ছিল ২৬ নভেম্বর। সেদিন ছয় মেয়র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। কিন্তু বিএনপি প্রার্থী বাবলার কাগজপত্র ঠিক থাকায় এবং ঋণখেলাপি সংক্রান্ত কোনো তথ্য না থাকায় তার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়নি।

এদিকে বাতিলকৃত ছয় মেয়র প্রার্থীর মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক জাপা নেতা ও রংপুর পৌর সভার সাবেক মেয়র আব্দুর রউফ মানিক, মেহেদী হাসান বনি, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মজিদ, শাকিল রায়হান ও সুইটি আনঞ্জুমের আপিল শুনানি হয়। শুনানি শেষে পাঁচজনেরই মনোনয়ন বাতিল ঘোষণা করেন বিভাগীয় কমিশনার।

বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী জেলা যুবদল সভাপতি নাজমুল আলম নাজুর মনোনয়ন বাতিল করা হলেও তিনি এ বিষয়ে আপিল করেননি। গত শনিবার (২৫) নভেম্বর নগরীর গ্রান্ডহোটেল মোড়ের দলীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি প্রার্থীতা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন।

রসিক নির্বাচনে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ৩ ডিসেম্বর, প্রতীক বরাদ্দ ৪ ডিসেম্বর এবং ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে ২১ ডিসেম্বর। এ সিটি কর্পোরেশনে বর্তমানে ভোটার রয়েছে তিন লাখ ৮৮ হাজার ৪২১ জন। এর মধ্যে পুরুষ এক লাখ ৯৬ হাজার ৬৫৯ এবং নারী এক লাখ ৯১ হাজার ৭৬২ জন। সম্ভাব্য ভোটকেন্দ্র ১৯৬টি, ভোট কক্ষ এক হাজার ১৭৭টি।

সূত্র: জাগো নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.