EEU_RASHTO

নির্বাচনে ইসির গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে হবে : ইইউ রাষ্ট্রদূত

বাংলাদেশে নিযুক্ত ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) রাষ্ট্রদূত রেঞ্জি তেরিঙ্ক বলেছেন, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইসিকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে হবে। বুধবার বিকেলে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদার সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এ কথা বলেন।

বাংলাদেশের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি এখানে খুবই নতুন। তাই এ বিষয়ে মন্তব্য করা ঠিক হবে না। রাজনৈতিক পরিস্থিতি বর্তমানে ভালো রয়েছে এবং নির্বাচনে নির্বাচন কমিশনকে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন বাংলাদেশের গণতন্ত্র ও নির্বাচনে সব সময় সহযোগিতা করে আসছে উল্লেখ করে রেঞ্জি তেরিঙ্ক বলেন, আমি একমাস আগে বাংলাদেশে এসেছি। আমি নির্বাচন কমিশন, মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ অংশীজনের সঙ্গে দেখা করছি। নির্বাচন কমিশন একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সঙ্গে মিটিং আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সেজন্যই আমি এখানে এসেছিলাম। আমাদের পর্যবেক্ষকদের বিষয়ে কথা হয়েছে। সব বিষয়ে খুব ভালো আলোচনা হয়েছে।

উৎসঃ   জাগোনিউজ

পোপের আগমন: নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা নিশ্চিতে রাজধানীতে চলছে বিশেষ অভিযান

তিন দিনের সফরে আগামীকাল বৃহস্পতিবার ঢাকায় আসছেন খ্রিস্ট ধর্মের রোমান ক্যাথলিক শাখার প্রধান ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস। তাঁকে দেয়া হচ্ছে ভিভিআইপি (রাষ্ট্রের সবোর্চ্চ) নিরাপত্তা। তাঁর (পোপ) আগমন উপলক্ষে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা নিশ্চিত রাখতে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ গত ২২ নভেম্বর থেকে বিশেষ অভিযান শুরু করেছে। বাড়ানো হয়েছে গোয়েন্দা কার্যক্রম। নিরাপত্তায় এসএসএফ-এর পাশাপাশি রয়েছে পুলিশ ও র‌্যাব।

এছাড়া সকল ভেন্যু, হোটেল ও বিমানবন্দর কেন্দ্রিক মোতায়েন করা হয়েছে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা। তাঁর গমনাগমনকালে পোশাকে এবং সাদা পোশাকে পুলিশ সদস্য মোতায়েন থাকবে। এছাড়াও স্ট্যান্ডবাই হিসেবে প্রস্তুত হয়েছে সোয়াট ও বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিটের সদস্যরা। অপরদিকে পোপের সঙ্গে থাকছে অস্ত্রসহ তাঁর ব্যক্তিগত নিরাপত্তা সদস্যরা।

ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস বিকেল ৪টা ২০ মিনিটে বাংলাদেশ বিমানের একটি বিশেষ ফ্লাইটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করবেন।

পোপ ফ্রান্সিসের নিরাপত্তা তদারককারী ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার মীর রেজাউল আলম বলেন, পোপ ফ্রান্সিস আগমন উপলক্ষে গত আটদিন আগেই নিরাপত্তা সংক্রান্ত সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। কোন রকম অপ্রতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে সে জন্য রাজধানীতে চলছে পুলিশের বিশেষ অভিযান (ব্লক রেইড)। আবাসিক হোটেলসহ নগরীর বিভিন্ন এলাকায় তল্লাশি চালিয়ে চালাচ্ছে পুলিশ।

তিনি বলেন, তিনি ( পোপ) ঢাকায় অবস্থানকালে যেসব ভেন্যুতে যাবেন সেখানে কয়েকদিন আগে থেকেই নিরাপত্তা জোরদারসহ গোয়েন্দা তৎপরতা বাড়ানো হয়েছে। ভেন্যুগুলোর মধ্যে রয়েছে- সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, রমনা ও তেজগাঁও চার্চ, নটরডেম কলেজ। এছাড়া তিনি যেখানে অবস্থান করবেন বারিধারাস্থ ভ্যাটিকান দূতবাসসহ আশপাশ এলাকায় সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। অপর এক প্রশ্নের জবাবে পুলিশের এ কর্মকর্তা বলেন, পোপ ফ্রান্সিস বিমানবন্দরে অবতরণের পরই তাঁর এ নিরাপত্তা কার্যক্রম শুরু হবে।

মীর রেজাউল আলম বলেন, ধর্মগুরু পোপের সঙ্গে আগত বিদেশি অতিথিদের জন্য নির্ধারিত হোটেল, সম্মেলনস্থল প্রত্যেকটি ভেন্যু সুইপিংসহ সিসি ক্যামেরা দিয়ে মনিটরিং করা হবে। আর্চওয়ে স্থাপন এবং পুরুষের পাশাপাশি মহিলা স্বেচ্ছাসেবক থাকবে। আবাসনস্থল ও যাতায়াত রাস্তা নিরাপত্তা ব্যবস্থা, রুফটপ ডিউটি, মোবাইল ডিউটি প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

পুলিশের একটি সূত্র জানায়, পোপের সফরে দেড় লাখ বিশেষ ধরনের নিরাপত্তা কার্ড তৈরি করা হয়েছে। কার্ডগুলো তৈরি করেছে টাইগার আইটি। ৯ রঙের কার্ড তৈরি করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রবেশ করার সময় এ কার্ড ব্যবহার করতেই হবে। এর বিশেষত্ব হলো, এ কার্ড যিনি বহন করবেন, তার গতিবিধি সহজেই চিহ্নিত করা যাবে। তবে এ কার্ড একবারই কার্যকর থাকবে।

শীর্ষনিউজ২৪

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.