jatio_parti

শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচনে যাবে না জাতীয় পার্টি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনে কোনো নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে না জাতীয় পার্টি (কাজী জাফর)। দলের বর্ধিত সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।গুলশানস্থ জাতীয় পার্টির অস্থায়ী কার্যালয়ে ভারপ্রাপ্ত চেয়াম্যান ও সাবেক মন্ত্রী ড. টি.আই এম ফজলে রাব্বী চৌধুরীর সভাপতিত্বে দুদিনব্যাপী সভা আজ রোববার শেষ হয়। সভায় জাতীয় পার্টির মহাসচিব ও সাবেক মন্ত্রী মোস্তাফা জামাল হায়দারসহ বিভিন্ন জেলা থেকে আগত ৫৮ জন নেতা বক্তব্য রাখেন। সভায় কয়েকটি প্রস্তাব পাশ হয়।

এর মধ্যে অন্যতম হলো- জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তিন মাস আগে জাতীয় সংসদ ভেঙে দিতে হবে। বিএনপির চেয়ারপারসন ও ২০ দলীয় জোটের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলার সাজা দিয়ে তাকে নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষণার যেকোনো ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে দেশবাসীকে সজাগ থাকতে হবে এবং প্রয়োজনে স্বেচ্ছায় কারাবরণ করা হবে।

এছাড়া বেগম খালেদা জিয়াকে কারারুদ্ধ করে বিএনপি ও ২০ দলীয় জোট ভাঙন সৃষ্টির অপচেষ্টা ও অনৈতিক কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানানো হয় এবং দেশবাসীকে এ ব্যাপারে সজাগ ও সতর্ক থাকার আহবান জানানো হয়।

সভায় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে অতীতের মতোই খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে আন্দোলন অব্যাহত রাখার পক্ষে মত দেন নেতারা। এছাড়া সভায় বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির তীব্র নিন্দ্রা ও প্রতিবাদ জানান নেতারা।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন, প্রেসিডিয়াম সদস্য এস.এম.এম আলম, আহসান হাবীব লিংকন, লুৎফর রহমান চৌধুরী হেলাল, নওয়াব আলী আব্বাস খান, আনোয়ারা বেগম, অধ্যাপক ডা. একেএম শহিদুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট মজিবুর রহমান, অ্যাডভোকেট মাওলানা রুহুল আমিন, অ্যাডভোকেট হোসনে আরা আহসাম, খালেকুজ্জামান চৌধুরী, আলহাজ্ব মোঃ সেলিম মাস্টার, ভাইস চেয়ারম্যান সরদার আবু বকর, অধ্যক্ষ আবু ইউসুফ সেলিম, মোঃ নওশের আলী, শাহ্ আবদুল মতিন,এ.এইচ.এম জাহিদ হোসেন, কাজী বজলুর রহমান বেনু প্রমুখ।

কোথায় কীভাবে টাকা পাচার, প্রকাশ হবে সময়মতো

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আওয়ামী লীগের কর্মকাণ্ড লিপিবদ্ধ করা হচ্ছে। কোথায় কীভাবে টাকা পাচার করা হচ্ছে, বিভিন্ন পল্লি গড়ে তোলা হচ্ছে—সেই খবর দেশের মানুষ জানে। সময়মতো তার সবই প্রকাশিত হবে।

আজ রোববার ঢাকার ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ মন্তব্য করেন। বিএনপির জ্যেষ্ঠ ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ৫৩তম জন্মদিন উপলক্ষে জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দল আলোচনা সভাটির আয়োজন করে। এ ছাড়া চারুশিল্পী সংসদ নামের একটি সংগঠনের আয়োজনে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ করেন প্রধান অতিথি ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

দেশের অর্থনীতিকে ‘তাসের ঘর’-এর সঙ্গে তুলনা করে ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, সরকার একটি দুর্বল ভিত্তির ওপর দেশের অর্থনীতিকে দাঁড় করিয়েছে। দেশে নাকি সাংঘাতিক উন্নয়ন হচ্ছে! দেশ নাকি উন্নয়নের রোল মডেল! খবরের কাগজে ব্যাংকগুলোর অবস্থা কী কাহিল হয়ে পড়েছে, যেকোনো দিন ব্যাংকিং ব্যবস্থা ধসে পড়তে পারে। তিনি বলেন, এদিকে সড়কের উন্নয়নে মন্ত্রী সারা দিন বলছেন যে কোনো সমস্যা নেই, সব ঠিক আছে। অথচ রাস্তায় বের হলে দিনাজপুর যেতে ২০ ঘণ্টা লাগে, রাজশাহী যেতে ১৬ ঘণ্টা লাগে—এই হলো উন্নয়নের নমুনা।

সরকারের সময় শেষ হয়ে এসেছে দাবি করে ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, বোঁ বোঁ করে ঘুরে লাভ নেই। সরকারের মেয়াদ শেষ। তিনি বলেন, ‘আমরা পরিষ্কার করে বলেছি, আমরা এ দেশে শান্তির রাজনীতি করতে চাই। আসুন, সমঝোতা করুন। একটি সুষ্ঠু, সবার কাছে গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের দিকে যান। এলোমেলো করে ঘুরে লাভ নেই।’

জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, ভাইস চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, স্বেচ্ছাসেবকবিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সফু প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল।

prothom-alo

Check Also

হাজী সেলিমের হাতে জিম্মি লালবাগ?

গতকাল রাতে হাজী সেলিমের পুত্রের হাতে একজন নৌ-বাহিনী কর্মকর্তার লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনার পর মুখ খুলেছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Share
Pin