amaz_uddin

তারেক রহমান বাবার যোগ্য সন্তান: এমাজউদ্দীন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য এমাজউদ্দীন আহমদ বলেছেন, তারেক রহমান বাবার যোগ্য সন্তান। যিনি সাধারণ মানুষের কাছে বাবার মতোই ছুটে গিয়েছিলেন। এই নেতাকে ফিরিয়ে আনতে হলে তরুণ প্রজন্মকে উদ্যোগ নিতে হবে। তারেক রহমানের ৫৩তম জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান আলোচকের বক্তব্যে সাবেক উপাচার্য এ কথা বলেন। জাতীয়তাবাদী কর্মজীবী দল আজ শুক্রবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে এ সভার আয়োজন করে।

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের বড় ছেলে তারেক রহমান বাবার গড়া দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান। তাঁর মা সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া বিএনপির চেয়ারপারসন। তারেক রহমান প্রায় ১০ বছর ধরে সপরিবারে যুক্তরাজ্যের লন্ডনে অবস্থান করছেন। হাইকোর্টের রায়ে বিদেশে অর্থ পাচারের মামলায় সাত বছরের কারাদণ্ড পাওয়া তারেকের বিরুদ্ধে আর বেশ কয়েকটি মামলা বিচারাধীন রয়েছে।

১৯৯১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় আসার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পাওয়া এমাজউদ্দীন বলেন, ‘তারেক রহমান দেশে ফিরে এলে নেতৃত্বে নতুন ধারা প্রবাহিত হবে।’

বক্তব্যে এমাজউদ্দীন গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য তিনটি শর্তের কথা বলেন। প্রথমত, বর্তমান সংসদ ভেঙে দিতে। এ সংসদ রেখে নির্বাচন করাকে ‘বাতুলতা’ করা হবে বলেন। দ্বিতীয়ত, ভোটপ্রার্থীদের বিরুদ্ধে যেসব মামলা আছে, তা তুলে দিয়ে বা স্থগিত করে তাঁদের নির্বাচনের সুযোগ করে দিতে হবে। তৃতীয়ত, বর্তমান নির্বাচন কমিশন আলোচনার মাধ্যমে যেভাবে গঠিত হয়েছে, সেভাবে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে নিরপেক্ষ সরকার গঠনে আলোচনার পরিবেশ তৈরি করতে হবে।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার মাহবুব হোসেন। তিনি বলেন, ‘তারেক রহমান ফিরে আসবেন প্রধানমন্ত্রী বা রাষ্ট্রপতি হওয়ার জন্য নয়। নির্যাতিত মানুষের নেতা হিসেবে ফিরবেন।’ গুম, খুনের কথা উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, উন্নয়নের অবস্থা এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে মানুষ ঘর থেকে বের হতে পারে না।

নির্বাচন প্রসঙ্গে এই ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, কোনো পাগলও বিশ্বাস করবে না যে, আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর অধীনে নির্বাচন হলে, বিএনপি জয়ী হবে। নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া প্রহসনের নির্বাচন আর হতে পারবে না। বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন বলেন, তারেক রহমানের নাম শুনলে এ সরকার আতঙ্কিত হয়। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সমালোচনা করে বলেন, তিনি লাগামহীন কথা বলে জনবিচ্ছিন্ন হয়ে যাচ্ছেন। জাতীয়তাবাদী কর্মজীবী দলের সভাপতি মো. লিটনের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য দেন বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম মোল্লা, কর্মজীবী দলের সহসভাপতি ও সহসম্পাদক অপর্ণা রায়সহ প্রমুখ।

প্রথম-আলো

নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অসম্ভব: ইউরোপিয়ান কমিশন

বাংলাদেশের গণতন্ত্র, মানবাধিকার, ভোটের অধিকার, সংবাদপত্রের স্বাধীনতা শীর্ষক এক সেমিনার ভয়েস ফর বাংলাদেশের আয়োজনে ইউরোপিয়ান কমিশনের লন্ডন কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে। উক্ত সেমিনারে বাংলাদেশর বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি, মানবাধিকার পরিস্থিতি সহ বাংলাদেশের আগামী জাতীয় নির্বাচন বিষয়ে আলোচনা করা হয় এবং এসবের কারণ হিসেবে বক্তারা গত ৫ ই জানুয়ারি ২০১৪ সালের ভোটার বিহীন এক তরফা নির্বাচনকে দায়ী করেন।

উক্ত সেমিনারে ভয়েস ফর বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা আতাউল্লাহ ফারুকের সঞ্চালনায় মূল বক্তব্য রাখেন ইউরোপিয়ান কমিশনের লন্ডন কার্যালয়ের প্রধান জোয়ানা ক্রুজ। জোয়ানা ক্রুজ তার বক্তবে বলেন বাংলাদেশের গণতন্ত্র, মানবাধিকার, ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনার জন্য নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে ও সকল রাজনৈতিক দলের অংশগ্রহণে আগামী জাতীয় নির্বাচন বাঞ্ছনীয়।

তিনি বাংলাদেশের বর্তমান মানবাধিকার পরিস্থিতি, বিচার ব্যবস্থা সহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ইউরোপিয়ান কমিশনের অবস্থান তুলে ধরেন।

সেমিনারে আরও বক্তব্য রাখেন, ইউরোপিয়ান কমিশনের রাজনৈতিক প্রতিনিধি সাইমন এস্পোষিত, ইউরোপিয়ান কমিশনের লন্ডন প্রতিনিধি লুকা বারবারিস, ইউরোপিয়ান কমিশনের লন্ডন প্রতিনিধি কনরাড হাগডুস ও বাংলাদেশি স্টুডেন্ট ইউনিয়নের আহবায়ক এস এইচ সোহাগ এবং আলা উদ্দীন রাসেল , ডলার বিশ্বাস, নূর হোসাইন, লুৎফুর রহমান ,মনোয়ার মোহাম্মাদ, লুৎফুর রহমান লিঙ্কন।

সেমিনারে আরও উপস্থিত ছিলেন আকলিমা ইসলাম, আবুল হোসাইন নিজাম, লুবা চৌধুরী, মোঃ পারভেজ আজম, আব্দুল্লাহ আল মামুন, ফয়সাল আহমেদ, মাকসুদুর রহমান, জুবায়ের আহমেদ, শেখ সাদিক, এমদাদুলহক সহ আরও অনেকে।

(বিডিলাইভ২৪)

জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহন নিয়ে খালেদা–তারেকের যত ভাবনা

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি চেয়েরপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার ‘আপোষহীন নেত্রী‘ ও তারেক ইস্যুতে আবারও কি দলটি ভোটযুদ্ধের ময়দান থেকে দূরে সরে যাবে ? অর্থাৎ আগামী নির্বাচন কী বিএনপি বর্জন করতে যাচ্ছে ? জাতীয় রাজনীতির অন্দরমহল থেকে পর্যবেক্ষক মহল সবখানে এখন প্রশ্ন বড় হয়ে দেখা দিয়েছে।

লন্ডনে নির্বাসিত বিএনপির প্রতাপশালী নেতা পূত্র তারেক রহমানের কাছে তিন মাস থেকে চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরেই বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া বিপুল নেতাকর্মীর স্বতস্ফুর্ত অভ্যর্থনা পেয়েছেন। রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির পরিদর্শনে গেলে পথে পথে সমর্থকদের ঢল নেমেছে ,সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করতে গেলে লাখো জনতার জনস্রোত দেখেছেন কিন্ত জিয়া আরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় নিজেকে নির্দোষ দাবী করলেও পর্যবেক্ষকদের মতে সেই দন্ড তার চোখের সামনে ঝুলছে, যা তাকে নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষণা করবে।

এই আশংঙ্কা সব মহলে আলোচিত হচ্ছে এমনকি বেগম খালেদা জিয়া ও নির্বাসিত পুত্র তারেক রহমান ভোট যুদ্ধে অযোগ্য ঘোষিত হলে মরহুম রিয়ার এডমিরাল মাহবুব আলী খানের কন্যা পুত্র বধু সাবেক নৌবাহিনীর প্রধান ডা. জোবাইদা রহমান দলের হাল ধরবেন, ভোট যুদ্ধে অবতীর্ণ হবেন এমন আলোচনা জোরেসরে বইছে। কিন্ত সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়েরপার্সন বেগম খালেদা জিয়া নির্বাচনে অংশগ্রহনের যোগ্যতা হারাবেন কিনা তার চেয়েও বড় প্রশ্ন হয়ে দেখা দিয়েছে আগামী নির্বাচনে তার ‘আপোষহীন নেত্রীর’ চ্যালেঞ্জ ও মর্যদার লড়াই।

সেনাশাসক এরশাদের ৮৬ সালের নির্বাচন বর্জন করে খালেদা জিয়া আপোষহীন নেত্রীর ইমেজ অর্জন করেছিলেন। আগামী নির্বাচন সামনে রেখে তিনি বলে আসছেন শেখ হাসিনার অধীনে কোনো নির্বাচনে তিনি যাবেন না। নির্বাচন যে শেখ হাসিনার অন্তর্বর্তী সরকারের অধীনেইই হচ্ছে , সেটি ধ্রুবতারার মত সত্য।

সংবিধান সরকারকে সুবিধাজনক অবস্থায় ও বিএনপিকে বেকায়দায় ফেলেছে। এখন নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন দাবি থেকে সরে দাঁড়ালে বেগম খালেদা জিয়ার আপোষহীন নেত্রীর ইমেজ ধুলোয় লূটাবে। এটি বিএনপির জন্য বড় বিষয়। অন্যদিকে দুর্নীতির মামলায় সাজা প্রাপ্ত বিএনপির নির্বাসিত নেতা তারেক রহমান না দেশে ফিরতে পারছেন, না ভোট যুদ্ধে অংশ নিতে পারছেন!

অথচ বিএনপি যেখানে যেন তেন উপায়ে ভোটযুদ্ধে অংশ নিতে চায়। সেখানে তারক রহমান কে ছাড়া ভোটের লড়াইয়ে বিএনপি অবতীর্ণ হোক এটি তিনি মানছেন না। তার সমর্থকারা ও এমনটি চায়ছেন না।এদিকে বেগম খালেদা জিয়া শেখ হাসিনার সরকারের অধীনে নির্বাচন করলে ফলাফল কি হবে তা নিয়ে নানা মহলের সংশয় রয়েছে। তার আপোষহীন ইমেজের বারোটা বাজতে তিনি যেমন দিতে নারাজ তেমনি শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন করতে রাজি নন। সব মিলিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে বিএনপি কী ফের ভোট বজর্নের পথেই হাঠছে ? দল যতোই নির্বাচনের প্রস্তুতি নিক প্রশ্ন ততোই জোরধার হচ্ছে। আগামী ভোটযুদ্ধ নিয়ে কি ভাবছেন খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান ?

পুর্বপশ্চিম

Check Also

হাজী সেলিমের হাতে জিম্মি লালবাগ?

গতকাল রাতে হাজী সেলিমের পুত্রের হাতে একজন নৌ-বাহিনী কর্মকর্তার লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনার পর মুখ খুলেছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Share
Pin