ভিতরে বাহিরে অন্তরে অন্তরে আছ তুমি হৃদয়জুড়ে

৬ই সেপ্টেম্বর। খুব সাদামাটা একটা দিন ছিল যা নিয়ে কারো কোন আগ্রহ ছিল না। এই সাদামাটা দিনটা গত ২৪টি বছর ধরে হয়ে গেলো একটি শোকের দিন। একটি কষ্টের দিন। কারন ১৯৯৬ সালের এই দিনে আমরা হারিয়েছিলাম আমাদের চলচ্চিত্রে ধুমকেতুর মতো এসে বাংলা চলচ্চিত্রের দর্শকদের সবার মন জয় করা এক তরুন নায়ককে যার নাম সালমান শাহ। আজ তাঁর ২৪তম মৃত্যুবার্ষিকী। সালমান নেই কিন্তু আছে তাঁর স্মৃতি।

১৯৯৩- ১৯৯৬ মাত্র চারটি বছর। ২৬ টি- হ্যাঁ, মাত্র ২৬ টি সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। এই অল্প সময়েই অধিষ্ঠিত হয়েছেন জনপ্রিয়তা এবং সাফল্যের সর্বোচ্চ শিখরে, পরিণত হয়েছেন বাংলা চলচ্চিত্র ইতিহাসের সবেচেয়ে উজ্জ্বল নক্ষত্রে। তাঁর হিরন্ময় দ্যুতিতে ভাস্বর হয়েছে আমাদের বাংলা চলচ্চিত্র। এতো অল্প সময়ে মানুষের মনোজগতে এতো দৃঢ় অবস্থান পৃথিবী তে খুব অল্প মানুষই তৈরী করতে পেরেছে। যার প্রভাব ছড়িয়ে পড়েছিল চলচ্চিত্র জগতের ক্ষুদ্র গন্ডি ছাড়িয়ে সমগ্র দেশব্যাপী। আজ ৬ সেপ্টেম্বর। সারা দেশের অগণিত ভক্তকে শোকের সাগরে ভাসিয়ে ১৯৯৬ সালের এই দিন সালমান শাহ আমাদের ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন।

তাঁর মৃত্যুর শোক সইতে না পেরে বেশ কয়েকজন ভক্ত আত্মহননের পথ বেছে নিয়েছিল। এ থেকেই বোঝা যায় ভক্তদের আবেগের কত উচ্চ শিখরে অসীন ছিলেন তিনি।

চলচ্চিত্রে অনতিক্রম্য ঔজ্জল্য ছড়ানোর পাশাপাশি তাঁর সবচেয়ে বড় অবদান হল তিনি নিজেকে এদেশের তরুণদের কাছে ফ্যাশন এবং স্টাইল এর আইকন হিসেবে তুলে ধরেছিলেন। ভাবতে অবাক লাগে আমরা এখন পর্যন্ত যে ফ্যাশন ফলো করি তার বেশিরভাগই এসেছিল সালমান শাহর হাত ধরে, তাও প্রায় দুই দশক আগে। জিন্স, টি শার্ট, সানগ্লাস, হুডিওয়ালা গেঞ্জী, জ্যাকেট, বাইক চালানো, কান ফোড়া করা, মাথার রুমাল বাঁধা, ক্যাপ উলটা করে পড়া, লম্বা চুল রাখা সহ আরও কত যে নিত্য নতুন স্টাইল সালমান জনপ্রিয় করেছেন তা গুনে শেষ করা যাবে না। তাঁর অভিনীত ‘নয়ন’ নাটকে দেখানো হাত টেবিলে রেখে পাঁচ আংগুলের ফাকে ফাকে ছুড়ি চালানো প্র্যাকটিস করতে গিয়ে কত তরুনের হাত যে রক্তাক্ত হয়েছে তার ইয়াত্তা নেই। চলচ্চিত্র জীবনের চারটি বছর হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালার মতোই উনি তাঁর ভক্তদের মন্ত্রমুগ্ধ করে রেখছিলেন।

বাংলা চলচ্চিত্র আকাশের ধূমকেতুর মত আবির্ভাব ঘটেছিল তাঁর। চলেও গিয়েছেন অকালেই। ‘ভিনি ভিডি ভিসি’ প্রবাদের এত ভালো উদাহরণ সালমান ছাড়া আর কেউ আর হতে পারেনা। যতদিন বাংলা চলচ্চিত্র থাকবে ততদিনই সালমান বেঁচে থাকবেন অগুনিত ভক্তের স্মৃতির পাতায়। নিশ্চিত ভাবেই বলা যায়, এমন একজন নায়ক আমরা আর কখনোই পাব না।

সালমান শাহর একটি সিনেমার গান এর সাথে সুর মিলিয়ে বলতে হয়, আকাশের যে ঠিকানায় তুমি থাক না কেন, সেই ঠিকানায়ই আমরা চিঠি লিখে যাব কারণ আমাদের, “ভিতরে বাহিরে অন্তরে অন্তরে আছ তুমি হৃদয়জুড়ে’’।

এক নজরে সালমান শাহ

–  প্রকৃত নাম : চৌধুরী সালমান শাহরিয়ার ইমন

– জন্ম : ১৯ সেপ্টেম্বর ১৯৭১, রবিবার

– বাবা : কমর উদ্দিন চৌধুরী

– মা : নীলা চৌধুরী

– স্ত্রী : সামিরা

– উচ্চতা : ৫ ফুট ৮ ইঞ্চি

– রাশি : বৃশ্চিক

– প্রথম চলচ্চিত্র : কেয়ামত থেকে কেয়ামত

– শেষ ছবি : বুকের ভেতর আগুন

– প্রথম নায়িকা : মৌসুমী

– সর্বাধিক ছবির নায়িকা : শাবনূর (১৪টি)

– মোট ছবি : ২৭টি

– বিজ্ঞাপনচিত্র : মিল্ক ভিটা, জাগুরার, কেডস, গোল্ড স্টার টি, কোকাকোলা, ফানটা।

– ধারাবাহিক নাটক : পাথর সময়, ইতিকথা

– একক নাটক : আকাশ ছোঁয়া, দোয়েল, সব পাখি ঘরে ফেরে, সৈকতে সারস, নয়ন, স্বপ্নের পৃথিবী।

– মৃত্যু : ৬ সেপ্টেম্বর, ১৯৯৬, শুক্রবার

সালমান শাহ অভিনীত ছবির নাম  ও মুক্তির তারিখ:

– কেয়ামত থেকে কেয়ামত -১৯৯৩ সালের ২৫ মার্চ

– তুমি আমার -১৯৯৪ সালের ২২ মে

– অন্তরে অন্তরে -১৯৯৪ সালের ১০ জুন

– সুজন সখী – ১৯৯৪ সালের ১২ আগস্ট

– বিক্ষোভ -১৯৯৪ সালের ৯ সেপ্টেম্বর

– স্নেহ -১৯৯৪ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর

– প্রেমযুদ্ধ -১৯৯৫ সালের ২৩ ডিসেম্বর

– কন্যাদান -১৯৯৫ সালের ৩ মার্চ

– দেনমোহর -১৯৯৫ সালের ৩ মার্চ

– স্বপ্নের ঠিকানা -১৯৯৫ সালের ১১ মে

– আঞ্জুমান -১৯৯৫ সালের ১৮ আগস্ট

– মহামিলন -১৯৯৫ সালের ২২ সেপ্টেম্বর

– আশা ভালোবাসা -১৯৯৫ সালের ১ ডিসেম্বর

– বিচার হবে- ১৯৯৬ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি

– এই ঘর এই সংসার -১৯৯৬ সালের ৫ এপ্রিল

– প্রিয়জন -১৯৯৬ সালের ১৪ জুন

– তোমাকে চাই -১৯৯৬ সালের ২১ জুন

– স্বপ্নের পৃথিবী -১৯৯৬ সালের ১২ জুলাই

– সত্যের মৃত্যু নেই -১৯৯৬ সালের ৪ অক্টোবর

– জীবন সংসার -১৯৯৬ সালের ১৮ অক্টোবর

– মায়ের অধিকার -১৯৯৬ সালের ৬ ডিসেম্বর

– চাওয়া থেকে পাওয়া -১৯৯৬ সালের ২০ ডিসেম্বর

– প্রেম পিয়াসী -১৯৯৭ সালের ১৮ এপ্রিল

– স্বপ্নের নায়ক -১৯৯৭ সালের ৪ জুলাই

– শুধু তুমি -১৯৯৭ সালের ১৮ জুলাই

– আনন্দ অশ্রু -১৯৯৭ সালের ১ আগস্ট

– বুকের ভেতর আগুন -১৯৯৭ সালের ৫ সেপ্টেম্বর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.