sunny_leone

সানি লিওন অনুষ্ঠান করলে নষ্ট হয়ে যাবে যুবসমাজ!

সাবেক পর্ন তারকা ও হালের বলিউড ডিভা সানি লিয়ন যুবসমাজের জন্য বিপজ্জনক। তাই নতুন বছরকে বরণের রাতে সানি লিয়নের অনুষ্ঠান করতে দেওয়ার ঝুঁকি নেওয়া যাবে না। এই যুক্তি দেখিয়ে ভারতের বেঙ্গালুরুতে সানি লিওনের অনুষ্ঠানই বাতিল করে দিল কর্নাটক সরকার।

খবর অনুযায়ী, আগামী ৩১ ডিসেম্বর বেঙ্গালুরুতে এক অনুষ্ঠানে পারফর্ম করার কথা ছিল সানি লিওনের। কিন্তু সানির অনুষ্ঠানের অনুমতি দিলে আইনশৃঙ্খলার অবনতি হতে পারে, এই যুক্তি দেখিয়ে অনুষ্ঠানের অনুমতি নাকচ করে দিয়েছে কর্নাটক সরকার। উদ্যোক্তাদের অবশ্য দাবি, পরিবার নিয়ে সবাই যাতে উপভোগ করতে পারে, সেভাবেই সানির অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছিল।

কর্নাটক সরকারের দাবি, গত আগস্ট মাসে কেরালের কোচিতে সানির অনুষ্ঠান চলাকালীন ব্যাপক বিশৃঙ্খলা দেখা দেয়। তাই অনুমতি নাকচ করার আগে কোচি পুলিশের থেকেও মতামত নেওয়া হয়েছে।

কন্নড়ে যে সংগঠনগুলি সানির অনুষ্ঠানের বিরোধিতায় নেমেছিল, তাদের দাবি, সানি লিওন অনুষ্ঠান করলে যুবসমাজ নষ্ট হয়ে যাবে। এমনকী এই অনুষ্ঠান হলে গণআত্মহত্যার হুমকি দিয়ে রেখেছিল এই সংগঠনগুলি।

একসময় নীল ছবির তারকা সানি বলিউডের প্রথমসারির ছবিতেও অভিনয় করছেন। এমনকি কন্নড় ছবি ‘ডিকে’-তে অভিনয় করেছেন তিনি। শুধু তাই নয়, সানি এখন দত্তক নেওয়া কন্যাসন্তানের মাও বটে। এত কিছুর পরেও যে সানির ‘উষ্ণ’ ইমেজে এতটুকু ভাটা পড়েনি, কর্নাটকের ঘটনাই তার বড় প্রমাণ।

সানির সেই আলোচিত বিজ্ঞাপনে নিষেধাজ্ঞায় উত্তপ্ত সোশ্যাল মিডিয়া

‘শিশুমননে কুপ্রভাব ফেলছে’, শুধুমাত্র এই দাবির ভিত্তিতেই সন্ধ্যা ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত সাবেক পর্ন তারকা সানি লিওনের কনডমের বিজ্ঞাপন নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত সরকার।

ভারতের তথ্য এবং সম্প্রচার মন্ত্রালয়ের তরফ থেকে প্রতিটি টেলিভিশন চ্যানেলের কাছেই একটি সরকারি নির্দেশিকা পাঠানো হয়েছে যেখানে সাফ বলা হয়েছে, ‘সকাল ৬টা থেকে রাত ১০টা, এই সময়ের মধ্যে কোনওভাবেই কোনও কনডমের বিজ্ঞাপন সম্প্রচার করা যাবে না’।

ভারত সরকারের রক্ষ্মণশীল মনোভাবের বহিঃপ্রকাশেই তেলে বেগুনে জ্বলে উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়া। ক্ষোভ মোড় নিয়েছে বিদ্রূপে। টুইটার জুড়ে এখনএই বিষয়ে ট্রোলিংয়ের ঢেউ।

“সকাল ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত যদি কন্ডোমের বিজ্ঞাপন নিষিদ্ধ করা হয় তাহলে ওই সময়ে দরজা বন্ধ থাকুক সিরিয়ালগুলিও”, দাবি উঠছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। টুইটারে ‘টার্গেট’ হয়েছেন ভারতের কেন্দ্রীয় তথ্য মন্ত্রী স্মৃতি ইরানিও।

টুইটার জনতা কটাক্ষ করে বলছেন, ‘স্মৃতি ইরানি কন্ডোম বিজ্ঞাপনের সম্প্রচারে নিষেধাজ্ঞা জারি করার কারণেই বেড়েছে তুলসী’র পরিবার’। উল্লেখ্য, তুলসী ভারতের এক বহুল প্রচলিত ধারাবাহিকের জনপ্রিয় চরিত্র, যেখানে অভিনয় করছেন স্বয়ং স্মৃতি ইরানি। এখানেই শেষ নয় নেটিজেনদের নিশানায় আছেন যোগগুরু রামদেবও। পতঞ্জলি না কি খুব শীঘ্রই আয়ুর্বেদিক কনডম নিয়ে আসছে, এমন বিদ্রুপও করেছেন অনেকে।

বিডি-প্রতিদিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.