shakib_apu_joy

অপু বিশ্বাসকে ডিভোর্স লেটার পাঠালো শাকিব খান

সব জল্পনা কল্পনার অবশান ঘটিয়ে আলোচিত অভিনেত্রী অপু বিশ্বাসকে ডিভোর্স লেটার (তালাকের চিঠি) পাঠিয়েছেন অভিনেতা শাকিব খান।
সোমবার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে।

এই দম্পতির আব্রাম খান জয় নামে দু’বছরের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। অপু-শাকিবের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরেই মতবিরোধ চলে আসছিল। যার পরিসমাপ্তি হতে যাচ্ছে সম্পর্ক ছিন্নের মধ্য দিয়ে।

যদিও এটি কার্যকর হতে আইন অনুযায়ী তিন মাস সময় লাগবে। আর এর মধ্যে চাইলে তারা এটি বাতিল করে নতুন করে সংসার জীবন শুরুর সুযোগ পাবেন। যদিও সে সম্ভাবনা কম বলেই মনে করছেন তাদের ভক্তরা। তবে এ ব্যাপারে এখনও বিস্তারিত তথ্য জানা যায়নি।

বেশ কয়েকটি বেসরকারি স্যাটেলাইট টিভি চ্যানেল ডিভোর্স লেটার পাঠানোর খবরটি প্রচার করছে। বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার জন্য শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হচ্ছে। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তাদের কোন মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

গত কয়েকদিন ধরেই গুঞ্জন চলছিল ডিভোর্স হতে পারে শোবিজ জগতের এই সময়ের আলোচিত শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস জুটির। শেষমেষ বোধহয় সেই গুঞ্জনই সত্যি হলো। সোমবার স্ত্রী অপু বিশ্বাসকে ডিভোর্স পেপার পাঠিয়েছেন স্বামী শাকিব খান।

ইন্ডিপেনডেন্ট ও সময় টেলিভিশনসহ বেসরকারি বেশ কয়েকটি চ্যানেলের স্ক্রলে এমন খবরই প্রচার করা হচ্ছে।

গত ১৭ নভেম্বর থেকেই এই দুই তারকা জুটির ডিভোর্সের গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল। গুঞ্জনটির জন্ম দিয়েছিলেন শাকিব খান নিজেই। আগের দিন ১৬ নভেম্বর ছেলে জয়কে কাজের মেয়ে শেলীর কাছে তালাবদ্ধ অবস্থায় রেখে কলকাতা চিকিৎসা করাতে যান অপু বিশ্বাস। থাইল্যান্ড থেকে ফিরে পরের দিন শুক্রবার ছেলেকে দেখতে অপুর নিকেতনের বাসায় যান শাকিব। কিন্তু বাইরে থেকে তালা দেয়া থাকায় ছেলের সঙ্গে দেখা করতে পারেননি কিং খান।

ওই ঘটনার পরেই ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন শাকিব। সাংবাদিকদের বলেন, ‘মা হিসেবে অপু বিগ জিরো। সন্তানের প্রতি যদি মায়া থাকতো তাহলে কাজের মেয়ের কাছে তাকে তালবদ্ধ অবস্থায় রেখে যেত না। তার বিরুদ্ধে খুব শিগগিরই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেব।’

তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তটি আসলে কী, সেটি সেদিন পরিষ্কার করে জানাননি নায়ক। কিন্তু সেটি যে ডিভোর্সের মতো কিছুই হতে পারে তা অনুমান করেছিলেন অনেকেই। আজ অপুকে ডিভোর্স পেপার পাঠানোর মধ্যদিয়ে সেই অনুমানই সত্যি হয়ে গেল।

উল্লেখ্য, ২০০৮ সালে গোপনে বিয়ে করার পর প্রায় নয় বছর তা গোপন করে রাখেন শাকিব-অপু। এরই মধ্যে তাদের কোল জুড়ে আসে ছেলে আব্রাম খান জয়। তখনো বিয়ের কথা লুকিয়ে রাখেন এই তারকা দম্পতি। ছেলের জন্ম দিতে ২০১৬ সালের শুরুর দিকে হঠাৎ উধাও হয়ে যান অপু। ভারতের কলকাতার একটি হাসপাতালে গত বছরের ২৭ সেপ্টেম্বর জন্ম হয় জয়ের। এরপর কেটে যায় আরো সাত মাস।

গত ১০ এপ্রিল সাত মাসের ছেলে জয়কে নিয়ে বেসরকারি টিভি চ্যানেল নিউজ টোয়েন্টিফোরে হঠাৎ হাজির হন অপু। সরাসরি সম্প্রচারিত সাক্ষাৎকারে ছেলেকে কোলে নিয়ে অপু প্রকাশ করেন তাদের বিয়ের কথা। ক্যারিয়ারের কথা ভেবে শাকিব খানই তাদের বিয়ে ও ছেলের কথা লুকিয়ে রাখতে উদ্বুদ্ধ করেন বলে জানান অপু। কিন্তু ছেলেকে আর লুকিয়ে রাখতে তার ভালো লাগছিল না।

এ ঘটনায় শাকিব প্রথমে উত্তেজিত প্রতিক্রিয়া দেখালেও বিয়ে ও ছেলের কথা স্বীকার করে নেন। তবে ক্ষুব্ধ হন অপুর ওপর। যদিও তিনি পরে জানান, স্ত্রী অপু ও ছেলে জয়কে নিয়ে সুখের সংসার করতে চান তিনি। কিন্তু এরপর কেটে গেছে আরো সাত মাস। এখনো এক ছাদের নিচে থাকা হয়নি শাকিব-অপুর।

এমনকি গত ২৭ সেপ্টেম্বর ছেলের প্রথম জন্মদিন আলাদাভাবে উদযাপন করেন দুজন। গুলশানের একটি হোটেলে ছেলের জন্মদিনের জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন অপু। অন্যদিকে শাকিবের আয়োজন ছিল গুলশানের আজাদ মসজিদে মিলাদ মাহফিল ও দুঃস্থদের মধ্যে খাবার বিতরণের মধ্যে সীমাবদ্ধ।

ঢাকাটাইমস

Check Also

করোনায় আক্রান্ত; মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন নায়ক মারুফ ও স্ত্রী

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ঢাকাই সিনেমার খ্যাতিমান নির্মাতা কাজী হায়াতের ছেলে কাজী মারুফ ও তার স্ত্রী। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Share
Pin